মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯ ০৩:৫২:১৭ পিএম

স্কুলছাত্রীর ‘হত্যায়’ অভিযুক্ত যুবকের আত্মহত্যা

জেলার খবর | গাজীপুর | বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০১৬ | ০১:০৮:২৬ পিএম

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে স্কুলছাত্রী মুন্নি ‘হত্যায়’ অভিযুক্ত আরাফাত সরকার (২৩) আত্মহত্যা করেছেন।
মঙ্গলবার রাতে কালিয়াকৈর উপজেলার রতনপুর গ্রামে ফুফুবাড়িতে তিনি আত্মহত্যা করেন। আরাফাত কালিয়াকৈর উপজেলার চাপাইর এলাকার আতাউর সরকার ছেলে।
কালিয়াকৈর থানার ওসি (তদন্ত) মো. রফিকুল ইসলাম আরাফাতের আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।
ওসি আরো জানান, মুন্নির নিহতের ঘটনায় তার বাবা শহিদ বাদী হয়ে আরাফাত সরকারকে আসামি করে মঙ্গলবার রাতে কালিয়াকৈর থানায় মামলা করেছেন।
স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার মুন্নির লাশ উদ্ধারের পর আরাফাত পালিয়ে কালিয়াকৈর উপজেলার রতনপুর গ্রামে তার ফুফুর বাড়িতে যান। সেখানে মঙ্গলবার রাতে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেন।
প্রসঙ্গত, কারিয়াকৈর উপজেলার কুতুবদিয়া গ্রামের কাঁচামাল ব্যবসায়ী শহিদের মেয়ে ও চাপাইর উচ্চবিদ্যালয়ের জেএসসি পরীক্ষার্থী মুন্নিকে (১৫) উত্ত্যক্ত করতেন আরাফাত সরকার। মঙ্গলবার সকালে নিজ বাড়ি থেকে মুন্নির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
মুন্নির ভাই রিপন বলেন, ‘সোমবার রাতে তার বাবা-মা ও অপর বোন পাশের গ্রামে গান শুনতে যান। সেখান থেকে ফিরে তারা যার যার রুমে ঘুমাতে যান। মঙ্গলবার ফজরের নামাজের সময় তার মা ঘুম থেকে উঠে বাড়ির গেটের ভেতর আরাফাতকে দেখেন। পরে আরাফাত এখানে কেন এসেছে তা জিজ্ঞাসা করলে হাঁটতে এসেছে বলে জানায়। সে সময় আরাফাত দৌড়ে পালিয়ে যান। পরে মা ঘরে এসে খাটের ওপর গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় মুন্নিকে পড়ে থাকতে দেখেন।’
মুন্নির পরিবারের দাবি, আরাফাত ওই রাতে ওড়না প্যাঁচিয়ে শ্বাসরোধে মুন্নিকে হত্যা করেছেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন