বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০২:৩৩:৫৭ পিএম

দেশে জনপ্রিয়তার শীর্ষে জ্যোতিষরাজ লিটন দেওয়ান চিশতী

বিবিধ | বৃহস্পতিবার, ২২ ডিসেম্বর ২০১৬ | ০৫:৩৬:৪৬ পিএম

জ্যোতিষরাজ লিটন দেওয়ান চিশতীর সংক্ষিপ্ত পরিচিতি লিটন দেওয়ান চিশ্তী মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার বিবন্দী বাগবাড়ী গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত দেওয়ান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম মোঃ আবদুস সাত্তার দেওয়ান চিশতী ইসলামের আলোকে আলোকিত অতি উচ্চমানের একজন আধ্যাত্মিক সাধক ছিলেন। জ্যোতিষরাজ লিটন দেওয়ান চিশতী বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছেন।

একই সাথে বিভিন্ন অলি আওলিয়া দরবেশের দরবার ও মাজার শরীফ জেয়ারত করেছেন এবং নিজেকে আধ্যাত্মিক সাধনায় চিশতীয়া তরিকার আলোয় আলোকিত করেছেন। ওলিকুলের শিরোমনি, উপমহাদেশের বিখ্যাত ওলি হযরত খাঁজা মঈনুদ্দীন চিশতী (রহঃ) এর দরবার শরীফে যাওয়ার পর ২৩ তম বংশধর আজমীর শরিফের বর্তমান পীর সাহেব হযরত সৈয়দ হাসনাইন চিশতী (রহঃ) এর নিকট থেকে খেলাফত প্রাপ্ত হন লিটন দেওয়ান চিশতী ।

তিনি লিটন দেওয়ান চিশতী’কে বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি নির্বাচিত করেন। সেই সঙ্গে বাংলাদেশে চিশতীয়া তরিকার প্রচার ও প্রসারের দায়িত্ব প্রদান করেন। সর্বপেক্ষা আনন্দের বিষয় হলো সৈয়দ হাসনাইন চিশতী (রহঃ) (আজমীর শরিফের বর্তমান পীর), লিটন দেওয়ান চিশতী এর শিষ্যত্বে মুগ্ধ হয়ে প্রতি বছর ৪-৫ বার তাঁর দরবারে আতিথেয়তা গ্রহণ করেন।

এছাড়া তিনি প্রতি বছর ১৮ই ফাল্গুন লিটন দেওয়ান চিশতী এর পিতার ওরস মোবারকে উপস্থিত হয়ে আজমীর শরিফের অনুসারী ও ভক্তগণদের আশির্বাদ প্রদান করেন। জ্যোতিষশাস্ত্রে বিশেষ অবদান ও নিখুঁত ভবিষৎবাণীর স্বীকৃতিস্বরূপ লিটন দেওয়ান চিশতীকে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, বিচারপতি, আইন বিশেষজ্ঞ ও মন্ত্রীবর্গ বিভিন্ন সময়ে সনদ ও প্রশংসাপত্র প্রদান করেছেন। তন্মধ্যে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য বর্তমান মহামান্য রাষ্ট্রপতি এবং জাতীয় সংসদের সাবেক স্পীকার মোঃ আব্দুল হামিদ।

তাছাড়াও শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এম.পি, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দিন খান আলমগীর, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন, খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরী, উপমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী, সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়–য়া, ডেপুটি স্পীকার লেঃ কর্ণেল (অবঃ) শওকত আলী, সাবেক ডেপুটি স্পীকার আখতার হামিদ সিদ্দিকী, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম, সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ, কামাল আহম্মেদ মজুমদার এম.পি, সাবেক মন্ত্রী মওদুদ আহমেদ, সাবেক মন্ত্রী আব্দুল্লাহ আল নোমান, সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী শাহাজাহান সিরাজ,

অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী আনোয়ারুল কবির তালুকাদার, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শাহ আবুল হোসেন, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী গৌতম চক্রবর্তী, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন, সাবেক সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুল হক মোস্তফা শহীদ, বিচারপতি লতিফুর রহমান, বিচারপতি জয়নুল আবেদীন, সাবেক সেনাপ্রধান ও রাষ্ট্রদূত লেঃ জেনারেল (অবঃ) হারুন অর রশিদ (বীর প্রতীক) সাবেক এয়ার ভাইস মার্শাল (অবঃ) একে খন্দকার (বীর উত্তম) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভি সি প্রফেসর ডা. এমাজউদ্দিন আহমেদ, ড. মির্জা আব্দুল জলিল, জজ জহিরুল ইসলাম, জজ নুরুল ইসলাম, উপ সচিব কাজী আবু শরীফ এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ নিখুঁত ভবিষ্যৎ বাণীর জন্য বিভিন্ন সময়ে সনদপত্র, প্রশংসাপত্র এবং স্বর্ণপদক প্রদান করেন।

তিনি প্রেস কাউন্সিলের সাবেক চেয়ারম্যান বিচারপতি হাবিবুর রহমান খান এর নিকট থেকে স্বাধীনতা পদক, কিংবদন্তী অভিনেত্রী কবরী সারওয়ার এম.পি এর নিকট থেকে বাংলাদেশ কালচারার সোসাইটি কর্তৃক লাইফ টাইম এ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন। জীবন্ত কিংবদন্তী অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক এর নিকট থেকে শ্রেষ্ঠ জ্যোতিষী পদক গ্রহণ করেন।

এছাড়াও ইরাকের রাষ্ট্রদূত আদনান হাতাব ও ফিলিস্তিনী রাষ্ট্রদূত সাহ্তা জারাব অভ্যর্থনার মাধ্যমে নিখুঁত ভবিষ্যৎ বাণীর জন্য পুরষ্কার প্রদান করেন। ০৩-০৬-২০১০ইং তারিখে কানাডার টরেন্টোতে অবস্থানকালে কানাডা বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল এর চেয়ারপার্সন ব্যারিষ্টার জেরজিনা বেনসিক এর নিকট থেকে রত্ন বিশারদ হিসাবে স্বর্ণপদক গ্রহণ করেন। এছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়া ও প্রেস মিডিয়া সনদপত্র প্রদান করেন লিটন দেওয়ান চিশতীকে, তন্মধ্যে মাই টি.ভি, মোহনা টি.ভি, জনকন্ঠ, ইত্তেফাক, কালের কন্ঠ বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য। লিটন দেওয়ান চিশতী সবসময় সাধারণভাবে জীবন যাপন করতে পছন্দ করেন। তিনি খুবই বন্ধুবৎসল, সদালাপী।

তার সফলতায় ঈর্ষান্বিত হয়ে বিভিন্ন কুচক্রী ও অসাধু-মহল বিভিন্ন সময় মিথ্যা প্রচারণা চালায় এবং শত্রুতা তৈরি করে। কিন্তু লিটন দেওয়ান চিশ্তী তাঁর আধ্যাত্মিকতা, সততা, নিষ্ঠা ও ধৈর্য্যরে মাধ্যমে সকল শত্রুকে বন্ধুতে পরিণত করেন। তাঁর অসংখ্য ভক্ত ও অনুসারী রয়েছেন, যাদের দোয়া ও ভালবাসাকে শক্তিতে পরিণত করে সফলতার শীর্ষে অবস্থান করছেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন