বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭ ০৫:০৭:১৭ পিএম

নীলফামারীতে আলাদাভাবে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ পালন

জেলার খবর | নীলফামারী | বৃহস্পতিবার, ৫ জানুয়ারী ২০১৭ | ০৭:২২:০৭ পিএম

নীলফামারীতে টান টান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আলাদাভাবে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ পালন করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে অবস্থিত দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদের নেতৃত্বে একটি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হকের নেতৃত্বে আরেকটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। এ সময় শহরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। তবে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই দিবসের কর্মসূচি শেষ হয়।

র‌্যালি শেষে স্থানীয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রশিদ মঞ্জু, মুক্তিযোদ্ধা আমিনুল হক, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রাবেয়া আলিম, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আরিফা সুলতানা লাভলী, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াহিয়া আবিদ প্রমুখ।

স্বাধীনতা অম্লান স্মৃতি চত্বরে নীলফামারী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম রিন্টুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবুজার রহমান, জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতি জোটের আহ্বায়ক আহসান রহিম মঞ্জিম, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান বুলেট, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের দুইটি গ্রুপ পৃথকভাবে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ পালন করায় দলের মধ্যে কোন্দল প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ জানান, দলের সকল নেতা-কর্মীসহ অঙ্গসংগঠনকে ডেকে দিবসটি পালনে প্রস্তুতি সভা করা হয়েছিল। কিন্তু অপর একটি পক্ষ জেলা আওয়ামী লীগের কর্মসূচির বাইরে আরেকটি কর্মসূচি পালন করে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক অভিযোগ করে বলেন, জেলা সভাপতি একক সিদ্ধান্তে সব করেন। তাই তারা সবাইকে নিয়ে আলাদা কর্মসূচি পালন করেছেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন