বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০৬:৪১:৫৬ পিএম

সিলেটে টিলা ধসে মৃতের সংখ্যা নিয়ে ধূম্রজাল

জেলার খবর | সিলেট | সোমবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৭ | ০৮:৩০:৩১ পিএম

সিলেটের সীমান্তবর্তী কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় সোমবার ভোরে শাহ আরেফিন টিলা ধসে প্রকৃতপক্ষে ক'জন মারা গেছে তা সন্ধ্যা পর্যন্ত জানা যায়নি।

স্থানীয় সূত্রগুলো ছয়জনের মৃত্যুর খবর পেয়েছে বলে জানিয়েছে। কিন্তু সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত সুপার সুজ্ঞান চাকমা জানিয়েছেনর, এখন পর্যন্ত দু'জনের মৃত্যুর বিষয়ে তিনি নিশ্চিত হতে পেরেছেন। মৃত দুজনের পরিচয় তুলে ধরে তিনি জানান, তাদের একজনের নাম আল হাদী, অপর জন আব্দুল কাদির। তবে তাদের লাশ এখনো উদ্ধার হয়নি।

সুজ্ঞান চাকমা ছয়জনের মারা যাওয়ার কথাও শুনেছেন জানিয়ে বলেন, এলাকাটা খুবই দূর্গম। ঘটনা ভোরে। পুলিশ যাওয়ার আগেই মরদেহের কি হয়েছে বলা মুশকিল।

সিলেট শহর থেকে ৩৫ কি. মি. দূরে শাহ আরেফিন টিলা। টিলাটির অবস্থান উপজেলার পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়নে। ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ জামাল ছয়জনের মৃত্যুর খবর জানান মিডিয়াকে। তিনি বলেন, সেখানে কর্মরত শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে আমি ছয়জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছি। এ দুর্ঘটনায় আরো কয়েকজন আহত হতে পারে বলেও জানান তিনি।

ছয়জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছেন পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়ের গত নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুল আহমদও। সোমবার ভোরে শাহ আরেফিনের টিলার অন্তর্ভুক্ত মটিয়ার টিলা কেটে পাথর উত্তোলনের সময় ওই টিলা ধসে পড়ে। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। নিহতরা সকলেই পাথর শ্রমিক।

নিহতদের নাম ঠিকানা নিয়েও রয়েছে বিভ্রান্তি। নিহতদের বাড়ি নেত্রকোনা জেলায় বলে জানা গেছে। দুইজনের বাড়ি সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নে।

অঞ্জু নামের স্থানীয় এক প্রভাবশালী ব্যক্তি প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে শ্রমিক দিয়ে টিলা কেটে পাথর উত্তোলন করাচ্ছিলেন বলে জানা গেছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি বায়েছ আলম বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। তারা ফিরে এলে নিশ্চিতভাবে নিহতের সংখ্যা জানাতে পারবো।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন