বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭ ১১:০১:২৮ পিএম

সাভারে যুবলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০

জেলার খবর | ঢাকা | শনিবার, ১১ মার্চ ২০১৭ | ০৮:৪৭:২৭ পিএম

সাভারে একটি তৈরি পোশাক কারখানার ঝুট কাপড়ের ব্যবসার দখল নিয়ে যুবলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ১০ ব্যক্তি আহত হয়েছে।

শনিবার দুপুরে সাভারের ২ নম্বর কলমা এলাকায় অবস্থিত মানারাত নিটওয়্যার লিমিটেড কারখানায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে রাজু (৩০) নামে একজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় সাভার এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

মানারাত নিটওয়্যার কারখানার মালিক আলমগীর কবীর জানান, দীর্ঘদিন ধরে সাভার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান যুবলীগ নেতা সোহেল রানার সমর্থিত মোহন গ্রুপের লোকজন আমার কারখানা থেকে ঝুট কাপড়ের ব্যবসা করছিল। শনিবার দুপুরে বিরুলিয়া ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা সেলিম মন্ডলের লোকজন জোর করে ঝুট বের করে নিতে আসে। এ সময় বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সোহেল রানাকে জানানো হয়। পরে সোহেল রানার লোকজন ঘটনাস্থলে আসলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

যুবলীগ নেতা সোহেল রানা বলেন, যে কারখানাটিতে ঝুট নিয়ে সংঘর্ষ হয়েছে সেটি সাভার সদর ইউনিয়নের ২ নম্বর কলমায় অবস্থিত। কিন্তু বিরুলিয়া ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা সেলিম মন্ডল আগেও কয়েকবার আমার লোকজনকে ব্যবসায় বাধা দিয়ে ঝুট নেওয়ার চেষ্টা করে।

তিনি বলেন, শনিবার দুপুরে আমি এলাকায় না থাকার সুযোগে তারা ওই কারখানার ঝুট ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালায়। এ সময় কারখানা কর্তৃপক্ষ আমাকে বিষয়টি অবহিত করলে তাৎক্ষণিক থানা পুলিশকে বিষয়টি জানাই। একই সময় খবর পেয়ে আমার লোকজন ঝুট নিতে বাঁধা দিলে তারা আমার লোকজনের ওপর হামলা চালায়।

তবে বিষয়টি জানতে যুবলীগ নেতা সেলিম মন্ডলকে একাধিকবার মুঠোফোনে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানার সহকারী পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, ঝুট নিয়ে সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন