শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০১৭ ০৬:৩০:২৫ এএম

শাহরুখের সঙ্গে জঙ্গির তুলনা! তাকে নিয়ে ৮টি বিতর্কিত মন্তব্য

বিনোদন | রবিবার, ১৯ মার্চ ২০১৭ | ০৪:১০:১২ পিএম

নিজে গোরক্ষনাথ মন্দিরের মহন্ত। গোরক্ষপুর থেকেই পাঁচ বারের বিজেপি সাংসদ। পূর্বাঞ্চলে ‘হিন্দু যুব বাহিনী’ নামে গড়েছেন উগ্র হিন্দুত্বের প্রচারের জন্য একটি দল, যাঁরা দরকারে আইন নিজেদের হাতে তুলে নিতেও দ্বিধা করেন না।

এ হেন যোগী আদিত্যনাথ বার বার বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে এসেছেন তাঁর বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক তারই কিছু ঝলক।

• শাহরুখ খানের জেনে রাখা উচিত, যদি সমাজের একটি বড় অংশ যদি ওর ছবি দেখা বন্ধ করে দেয়, তা হলে ওকে এক জন সাধারণ মুসলিমের মতো রাস্তায় ঘুরে বেড়াতে হবে। আমি মনে করি, শাহরুখ খানের ভাষার সঙ্গে হাফিজ সইদের ভাষার কোনও পার্থক্য নেই। (নভেম্বর, ২০১৫)

• মাদার টেরেসা ভারতে ধর্মপ্রচারের একটি চক্রান্তের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তিনি সেবার নামে হিন্দুদের


ধর্মান্তকরণ ঘটিয়েছেন। (বস্তি। জুলাই, ২০১৬)

• আমি উত্তরপ্রদেশ ও ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্রে পরিণত না করা পর্যন্ত থামব না (এটা, ২০০৫)

• (সংখ্যালঘুদের সম্পর্কে) আমরা চাই, তোমরা কাউকে মেরো না এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে থাকো ও উন্নয়নে মন দাও...যদি অন্য পক্ষ শান্তিতে না থাকে, আমরা দেখিয়ে দেব কী ভাবে শান্তিতে থাকতে হয়...যে ভাষা ওরা বোঝে, ঠিক সেই ভাষাতেই। (একটি টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানে, ২০১৪)

• যদি এক জন হিন্দু মেয়ের ধর্মান্তকরণ হয়, তা হলে আমরা ১০০ মুসলমান মেয়ের ধর্মান্তকরণ করব। যে ভাবে হিন্দু মেয়েদের অপমান করা হচ্ছে, আমার মনে হয় না কোনও সভ্য সমাজ তাকে মেনে নিতে পারে। যদি সরকার কিছু না করে, তা হলে হিন্দুরা নিজেদের হাতেই বিষয়টি তুলে নেবে। (তারিখ অজানা। সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, আজমগড়ের একটি ভাষণ)

• আপনারা (অ-বিজেপি দলগুলি) দাবি করেন যে, আপনারা ধর্মনিরপেক্ষ; কিন্তু যে এজেন্ডা কার্যকর করেন তা সাম্প্রদায়িক। দেশে ১২ লাখ হিন্দু সন্ত রয়েছেন, কিন্তু আপনারা ইমামদের মাইনে দেওয়ার কথা বলেন। এর নাম কী ধর্মনিরপেক্ষতা?

• সমাজবাদী পার্টির আড়াই বছরের শাসনকালে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশে ৪৫০টি সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হয়েছে। কারণ একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের জনসংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। যে সব জায়গায় ১০-২০ শতাংশ মুসলমান আছে, সেখানে ছোটখাট দাঙ্গার ঘটনা ঘটেছে। যেখানে ২০-৩০ শতাংশ মুসলমান আছে, সেখানে গুরুতর দাঙ্গা হয়েছে। যেখানে ৩৫ শতাংশের বেশি মুসলমান রয়েছে, সেখানে অ-মুসলমানদের কোনও জায়গাই নেই। (নয়ডা। সেপ্টেম্বর, ২০১৪)

• ভগবান শঙ্কর সবচেয়ে বড় যোগী ছিলেন এবং তিনিই যোগ শুরু করেছিলেন। মহাদেব এই দেশের প্রতিটি কণায় কণায় রয়েছেন।
যারা যোগ ও ভগবান শঙ্করকে এড়িয়ে চলতে চান, তাঁরা হিন্দুস্থান ছেড়ে চলে যেতে পারেন। (বারাণসী। জুন, ২০১৫)-এবেলা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন