মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮ ০৭:৩৪:৫২ পিএম

অর্ধচন্দ্রে লুকনো বিবাহরহস্য

ভিন্ন খবর | রবিবার, ২৬ মার্চ ২০১৭ | ০১:১৬:২৮ পিএম

জ্যোতিষ শাস্ত্রের কাজ হল মানুষের অতীত-বর্তমান-ভবিষ্যৎ নিয়ে চর্চা। মানুষের হাতের রেখায় নিহিত থাকে মানুষের ভাগ্য, এমনটাই বিশ্বাস করে জ্যোতিষ শাস্ত্র। হাতের তালুতে যে তিনটি প্রধান রেখা থাকে, তাদের মধ্যে আঙুলের দিক থেকে প্রথম এবং প্রধানতম স্পষ্ট রেখাটি তাকেই বলে হৃদয়রেখা। জ্যোতিষ শাস্ত্রের দাবি, দু’টি হাতের তালু পাশাপাশি মেলালে দুই তালুর হৃদয়রেখা জুড়ে গিয়ে কী ধরনের আকৃতি তৈরি করছে, তার উপরই নির্ভর করে আপনার বিবাহিত জীবন। কী রকম? আসুন, জেনে নিই।

 

(ছবি সৌজন্য: ইউটিউব)

১. দুই হাতের তালু পাশাপাশি রাখলে হৃদয়রেখা দু’টি জুড়ে গিয়ে যদি একটি সরলরেখা তৈরি করে: এঁরা শান্ত, ধৈর্যবান এবং নির্মল মনের মানুষ হন। এঁরা জীবনে স্থিরতার সন্ধান করেন, এবং অশান্তি সৃষ্টিকারী মানুষদের থেকে দূরে থাকতে পছন্দ করেন। এঁদের অ্যারেঞ্জড ম্যারেজ হওয়ার সম্ভাবনা সর্বাধিক। এঁদের বিয়েতে পরিবার এবং বন্ধুবান্ধবদের ভূমিকা হয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। 

২. দুই হাতের তালু পাশাপাশি রাখলে দুই হৃদয়রেখা যদি কোনও ভাবেই সংযুক্ত না হয়: বলা হয়, এঁরা নিজের বয়সের তুলনায় অনেক বেশি বুদ্ধিমান এবং পরিণত মানুষ। এঁদের মানসিক দৃঢ়তা অতুলনীয় হয়। দুনিয়া এঁদের সম্পর্কে কী ভাবছে, তা নিয়ে এঁরা ভাবিতই নন। বয়সে বড় মানুষের সঙ্গে এঁদের বিয়ে হওয়ার সম্ভাবনা অত্যন্ত বেশি। 

(ছবি সৌজন্য: ইউটিউব)

৩. দুই হাতের তালু পাশাপাশি রাখলে দু’টি হৃদয়রেখা মিলে গিয়ে যদি অর্ধচন্দ্রের মতো একটি আকৃতি তৈরি করে: এঁদের মনের জোর অত্যন্ত বেশি। এঁরা যখন কাউকে ভালবাসেন তখন একেবারে জান-প্রাণ দিয়ে ভালবাসেন। প্রেমের শীর্ষ স্পর্শ করতে এঁরা সক্ষম হন। ছোটবেলার কিংবা দীর্ঘদিনের পরিচিত কোনও মানুষই জীবনসঙ্গী হিসেবে এঁদের পক্ষে আদর্শ বলে বিবেচিত হন। সাধারণত সে রকম মানুষকেই এঁরা স্বামী বা স্ত্রী হিসেবে বেছে নেন।-এবেলা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন