সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০১৭ ০৩:৪৩:৫৯ এএম

কুমিরের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে প্রাণ গেল দর্শনার্থীর, দেখুন ভিডিও

বরগুনা ও পিরোজপুর সংবাদদাতা | জেলার খবর | পিরোজপুর | রবিবার, ২৬ মার্চ ২০১৭ | ০৭:০১:২৯ পিএম

বরগুনার তালতলীর ট্যাড়াগিরি ইকোপার্কে কুমিরের সাথে সেলফি তুলতে গিয়ে কুমিরের আক্রমণে নিহত হয়েছেন এক দর্শনার্থী। আজ শনিবার দুপুরে তালতলীর ট্যাড়াগিরি ইকোপাকের্র কুমির প্রজনন কেন্দ্রের ভেতর এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দর্শনার্থীর নাম আসাদুজ্জামান রণি (২৯)। তিনি মঠবাড়িয়া উপজেলার সবুজ নগর গ্রামের গোলাম মোস্থফার ছেলে। সে বাংলাদেশ থেকে বিবিএ পাশ করে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিএতে অধ্যায়নরত ছিল। সম্পতি আসাদুজ্জামান রনি ছুটিতে দেশে ফিরেছেন।



প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, স্ত্রী, মেয়ে ও আরো দুইজনকে নিয়ে শনিবার সকালে তালতলীর ট্যাংড়াগিরি ইকোপার্কের কুমির প্রজননকেন্দ্রে কুমির দেখতে যান রনি। আজ দুপুর ২টার দিকে রনি বিপৎসীমার প্রাচীর টপকে একটি কুমিরের কাছাকাছি গিয়ে সেলফি তুলছিলেন।

এক পর্যায়ে কুমিরটি রনির ডান হাত কামড়ে তাকে পুকুরে টেনে নিয়ে যায়। বাকী পর্যটকদের চিৎকারে বন বিভাগের কর্মী ও কোস্টগার্ডের সদস্যরা সাথে সাথে সেখানে ছুটে যান। ততক্ষণে কুমিরটি দর্শনার্থী রণির মৃতদেহ ছেড়ে দিলে তা পুকুরে তলিয়ে যায়। পরে স্থানীয় অধিবাসীসহ তালতলী থানা পুলিশের সহযোগিতায় দীর্ঘ দুই ঘণ্টায় প্রচেষ্টার পর নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়।

তালতলী থানার ওসি কমলেশ চন্দ্র জানিয়েছেন, লাশের হাত ও মুখ-মন্ডলে গভীর ক্ষত হয়েছে। কুমিরের কামড় ও পানিতে পড়ে যাবার কারনে রনির মৃত্যু হয়েছে বলে সুরতহালে প্রতিয়মান হয়। লাশ ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন