বুধবার, ২৪ মে ২০১৭ ১১:৪২:৩৩ পিএম

যে কারণে কমে গেছে মুস্তাফিজের বলের কার্যকারিতা

খেলাধুলা | শুক্রবার, ২১ এপ্রিল ২০১৭ | ০৮:৫৪:২২ পিএম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনেকটা ধূমকেতুর মতো আবির্ভাব ঘটেছিলো টাইগার পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের। ভারতের বিপক্ষে স্বপ্নের ওয়ানডে অভিষেকের পর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) আসরেও কাটারের ঝলক দেখিয়েছিলেন তিনি।

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে নিজের প্রথম আইপিএলেই সেরা উদীয়মান ক্রিকেটার হিসেবে নির্বাচিত হন ফিজ। তবে মুদ্রার অপর পিঠও খুব তাড়াতাড়ি দেখে ফেলেছেন তিনি।

যেই মুস্তাফিজের বল খেলতে বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদেরও ঘাম ছুটে যেতো সেই মুস্তাফিজই কোথায় যেন হারিয়ে যাচ্ছেন ধীরে ধীরে। গত আইপিএল আসরে হায়দ্রাবাদ দলের হয়ে ঝলক দেখানো কাটার মাস্টার চলতি আসরে অনেকটাই নিষ্প্রভ।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে নিজের প্রথম ম্যাচে মাত্র ২.৪ ওভারে ৩৪ রান দেয়ায় আর ফিজের ওপর আস্থা রাখতে পারেনি হায়দ্রাবাদ। তাই পরবর্তী টানা তিন ম্যাচে তাঁকে ছাড়াই মাঠে নামে ডেভিড ওয়ার্নারের দল।

চলতি মাসের ২৬ তারিখে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে ইংল্যান্ডের সাসেক্সে একটি অনুশীলন ক্যাম্প করবে বাংলাদেশ দল। এই দলের সাথে যাবেন মুস্তাফিজ। ফলে টাইগার পেসারের এবারের আইপিএল শেষ হচ্ছে একটি মাত্র ম্যাচ খেলার হতাশা নিয়েই।

মুস্তাফিজের পারফর্মেন্সের পারদটি নিম্নগামী শুরু হয় কাঁধের ইনজুরি কাটিয়ে ফেরার পর থেকে। গত বছর বিখ্যাত শল্য চিকিৎসক এন্ড্রু ওয়ালেসের অধীনে কাঁধের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয় মুস্তাফিজের।

এরপর ৬ মাসের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে মাঠে ফেরেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কাটার মাস্টার খ্যাত এই পেস তারকা। তবে পুনরায় মাঠে ফিরলেও বোলিংয়ের সেই ধাঁর যেন কোথায় হারিয়ে ফেললেন মুস্তাফিজ।

অনেকেই মনে করছেন অস্ত্রোপচারের সেই ধকলের কারণেই মুস্তাফিজের বোলিং কার্যকারিতা কমে গেছে। নিজেকে এখনও সেভাবে ফিরে পাননি তিনি। তবে অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায়ে মুস্তাফিজের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করা মাহবুব আলী বিষয়টি মানছেন না।

তাঁর মতে মুস্তাফিজকে নিয়ে বেশীরভাগ ব্যাটসম্যানই গবেষণা করতে বাদ রাখেননি। মাঠে নামার আগে তাঁর কাটার বোলিং নিয়ে বিশ্লেষণ করেই মাঠে নামেন প্রতিপক্ষ দলের ক্রিকেটাররা। এই কারণেই আশানুরূপ পারফর্ম করতে ব্যর্থ হচ্ছেন ফিজ। মাহবুব আলী বলছেন,

‘ও যখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আসে, তখন কেউ মুস্তাফিজকে চিনত না। তবে এখন প্রতিপক্ষ নিশ্চয়ই মুস্তাফিজের বোলিংয়ের খুঁটিনাটি নিয়েও গবেষণা করতে বাদ রাখেনি। সবাই এখন জানে যে ওর ট্রেডমার্ক ডেলিভারিটা মিডল স্ট্যাম্পের ওপর পড়েই কাট করে। কাজেই আমি বলব ওর ক্যারিয়ারের আসল চ্যালেঞ্জটি এখনই সামনে এসে দাঁড়িয়েছে। টিকতে হলে এই চ্যালেঞ্জটি ওকে নিতেই হবে। ’

তবে ফিজের অনূর্ধ্ব ১৯ দলের কোচ বিশ্বাস করেন মুস্তাফিজ সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে আবারও ফিরবেন পাদপ্রদীপের আলোয়। অবশ্য এক্ষেত্রে আরও কিছুদিন সময়ের প্রয়োজন বলে জানালেন তিনি।

‘মুস্তাফিজ মন খুলে এখন আর কাটার দিতে পারছে না। সম্ভবত বড় এক ইনজুরি থেকে উঠে আসার কারণেই ওর মধ্যে জড়তা কাজ করছে। মনে হচ্ছে, আগের কার্যকারিতায় ফিরতে ওর আরো সময় লাগবে’, বলছিলেন মাহবুব।

মাহবুবের মতো দেশের হাজারো ক্রিকেট প্রেমীর প্রত্যাশা জড়তা কাটিয়ে আবারো ছন্দে ফিরুক তাদের প্রাণপ্রিয় ‘কাটার মাস্টার’। আর ফেরার আদর্শ উপলক্ষ হতে পারে ইংল্যান্ডের মাটিতে অনুষ্ঠিতব্য চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আসর। মিনি বিশ্বকাপ খ্যাত এই টুর্নামেন্টে আরও একবার মুস্তাফিজ ঝলক দেখার প্রতীক্ষায় গোটা বাংলাদেশ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন