শনিবার, ২৭ মে ২০১৭ ০৪:৪৪:১১ এএম

বরগুনায় বাঁধ ভেঙ্গে ৮ গ্রাম প্লাবিত

জেলার খবর | বরগুনা | মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৭ | ০৭:০৭:৩২ পিএম

মঙ্গলবার সকালে তালতলী উপজেলার তেতুলবাড়িয়া গ্রামের বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধের ভাঙ্গা জায়গা দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে ৭ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

সাগরে লঘু চাপের প্রভাবে পায়রা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় মঙ্গলবার সকাল ১০টার সময় বন্যানিয়ন্ত্রন বাঁধের ভাঙ্গা জায়গা দিয়ে পানি প্রবেশ করে ওই এলাকার তেতুলবাড়িয়া, নলবুনিয়া, আগাপাড়া, মরা নিদ্রা, নিদ্রারচর, গোড়াপাড়া সম্পূর্ন ও জয়াল ভাঙ্গার আংশিক প্লাবিত হয়েছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, তেতুল বাড়িয়া স্লুইজ গেটের পাশ দিয়ে ভাঙ্গা বাঁধ দিয়ে নদীর পানি ঢুকে কৃষকের লাগানো মিষ্টি আলু, বাদাম, মুগডালসহ রবি ফসলে ক্ষেত প্রায় এক থেকে দেড় ফুট পানিতে তলিয়ে গেছে। মাঠের বুকে এখন শুধু পানি পানি বিরাজ করছে।

তেতুলবাড়িয়া গ্রামের মুগডাল চাষী দরিদ্র বাবুল হাওলাদার জানান, তিনি লাভের আশায় ধারকর্য করে ১ একর ৩৩শতাংশ জমিতে মুগডাল চাষ করেছেন। ফলনও বেশ ভালই হয়েছিল। ডাল পাকা শুরু করেছে। আগামী সপ্তাহে ডাল তোলা যেত। ঠিক এই মুহুর্তে ভেরীবাঁধ ভেঙ্গে পায়রা নদীর পানি ঢুকে সম্পূর্নটাই তলিয়ে গেছে।

একই গ্রামের আলু চাষী দরিদ্র আনছার আলী জানান, তার স্ত্রীর কানের দুল বিক্রি করে প্রায় ২একর জমিতে আলু চাষ করেছেন কিন্তু পানিতে সর্বনাস হয়ে গেছে। আলু উঠানোর সময় হতে না হতেই জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে এতে আলু আর ঘড়ে তোলা যাবে না।

পানি উন্নয়ন উন্নয়ন বোর্ড বরগুনার নির্বাহী প্রকৌশলী মো: মশিউর রহমান বলেন, তেতুলবাড়িয়া এলাকার বেড়ি বাঁধ মেরামতের জন্য আমরা বহুবার চেষ্টা করেছি। জমি না পাওয়ায় বাঁধ মেরামত করা নম্ভব হয়নি। স্থানীয় জনগন আমাদের সহযোগিতা করছে না। বাঁধ নির্মানের জন্য জমি পাওয়া গেলে আজই মেরামত কাজ শুরু করা হবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন