শনিবার, ২৭ মে ২০১৭ ০৪:৪৪:৪১ এএম

হাতে লেখা পৃথিবীর সবচেয়ে বড় কোরআন শরীফ এটিই, সংরক্ষিত রয়েছে যেখানে

ধর্ম | বৃহস্পতিবার, ৪ মে ২০১৭ | ০৭:১১:৪৫ পিএম

মিশরের মোহাম্মদ সাদ নামের এক ব্যক্তি হাত দিয়ে প্রায় ৭০০ মিটার (দুই হাজার দুইশত ৯৬ ফিট) দীর্ঘ একটি কোরআন শরীফ লিখেছেন। তিন বছর ধরে অনেক পরিশ্রমের তিনি কাজটি শেষ করেছেন।

বলা হচ্ছে এটি পৃথিবীর এখন পর্যন্ত হাতে লেখা সবচেয়ে বড় কোরআন শরীফ। মোহাম্মদ সাদ শৈশবে স্কুল থেকে ঝরে পড়েছিলেন।

সাদ নিজেই কোরআন শরীফটির সব জটিল নকশা তৈরী করেছেন। এই কোরআন শরীফ এতই বড় যে, যখন এটি খোলা অবস্থায় রাখা হয়, তখন তার আয়তন ৩৮১ মিটার উচ্চতা সম্পন্ন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাম্পায়ার স্টেট বিল্ডিংয়ের দ্বিগুণ হবে। এখন পর্যন্ত মোহাম্মদ নিজেই এর পিছনে যাবতীয় খরচ বহন করেছেন। তিনি কায়রোর উত্তরে অবস্থিত বিলকিনা শহরের বাসিন্দা।

গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড অনুযায়ী ‘ওসমানের মুসাফ’ পৃথিবীর সব থেকে প্রাচীন কোরআন শরীফ যা ৬৫৫ লেখা হয়েছিলো। এটি তৎকালীন খলিফা ওসমানের সময়ে লেখা হয়েছিলো। ৭০৫ পৃষ্ঠার এই কোরআন শরীফটি বর্তমানে উজবেকিস্তানে সংরক্ষিত রয়েছে।

এর আগে হাতে লেখা বড় কোরআন শরীফের সন্ধান পাওয়া যায় ২০১২ সালে আফগানিস্তানে। এটি ২ দশমিক ২ মিটারের বেশি লম্বা এবং ১ দশমিক ৫৫ মিটারের মতো চওড়া যাতে ২১৮ পৃষ্ঠা রয়েছে।

এই কোরআন শরীফটি মোট ২১ টি ছাগলের চামড়া শুকিয়ে মোড়ানো এবং এটির মোট ওজন ৫০০ কিলোগ্রাম যা লিখতে মোট পাঁচ বছর সময় লেগেছিলো। কিন্তু এই বইটি অফিসিয়ালি গিনেজ বুক রেকর্ডে অন্তর্ভুক্ত নেই।

এর আগে কেউ ছোট বা ক্ষুদ্র কোরআন শরীফ লিখে রেকর্ড করেননি। ২০১২ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের এক নাগরিক মাত্র ৫ দশমিক এক সেন্টিমিটার দৈর্ঘ্যের এবং ৮ সেন্টিমিটার প্রস্থের ক্ষুদ্র একটি কোরআন শরীফ তৈরি করেন। যাতে মোট ৫৫০ টি পৃষ্ঠা রয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন