বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০১:৩৯:৪২ পিএম

আতঙ্কের নাম ঝিনাইদহ জনপদ

আতিকুর রহমান | জেলার খবর | ঝিনাইদহ | মঙ্গলবার, ৯ মে ২০১৭ | ০৪:০৬:৫০ পিএম

ঝিনাইদহে জেলায় বার বার বিভিন্ন সময়ে জঙ্গী আস্তানার সন্ধান লাভে এলাকাবাসী চরমভাবে ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছে। প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা বলছেন যারা গ্রেফতার আছে তাদের কঠোরভাবে জিঞ্জাসাবাদ চলছে।

প্রতিটা অপারেশন সফল হয়েছে।জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২২ এপ্রিল প্রথমবারের মতো জঙ্গী আস্তানর সন্ধান পাওয়া যায় ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি গ্রামে আব্দুল্লাহ বাড়ীতে। সে ওই ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিল।

গত ৭ই মে মহেশপুর উপজেলার বজ্রাপুরে ও সদর উপজেলার লেবুতলা গ্রামে সন্ধান পাওয়া যায় দুইটি জঙ্গী আস্তানার।মহেশপুর উপজেলার বজ্রাপুর গ্রামের গৃহবধূ শরিফা খানম জানান, মুহুমুহু বোমা বিস্ফোরনের শব্দে প্রকম্পিত হচ্ছে পুরো এলাকা।

মাইকিং করে ১৪৪ ধারা জারী করেছে প্রশাসন। এমন অবস্থায় কখনই পড়তে হয়নি ঝিনাইদহ জেলার সাধারণ মানুষদের। এ গ্রামের মুি যোদ্ধা আলতাফ হোসেন জানান, এদের চলাফেরা ও আচার আচরণ দেখে কখনই মনে হয়নি এরা ভুল পথে পাড়ি জমিয়েছে।

তবে তিনি দাবী করেন ভুল পথে গেলে অবশ্যই তাদের বিচার হওয়া উচিৎ।লেবুতালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা দিলরুবা খানম জানান, এ জেলায় গত দুই সপ্তহের ব্যবধানে ৩টি জঙ্গী আস্তানার খবরে এলাকার সাধারণ মানুষগুলো আতংকিত হয়ে পড়েছে।

এলাকার চেনা চেহারার মানুষগুলো কেনইবা দিনের পর দিন জঙ্গী হয়ে উঠছে, এ জাতীয় প্রশ্নের উত্তরগুলো যেন খুজে ফিরছে মানুষ।খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি দিদার আহম্মেদ জানান, সকল জঙ্গী আস্তানায় সফল অপারেশন চালানো হয়েছে। বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র, গোলাবারুদ ও বোমা তৈরীর সরঞ্জামাদী উদ্ধার চলছে। বোমা ও গ্রেনেড গুলো ধ্বংস করা হচ্ছে।

ঝিনাইদহে ৩টি জঙ্গী আস্তানায় অপারেশনের নাম সাউথ প এবং সাটল স্পি­ট। অপারেশন সাউথ প তে বোমা তৈরীরি সরঞ্জামাদী পাওয়া যায আর অপারেশন সাটল স্পি­ট এ ২ জঙ্গী নিহত হয় এবং ৩ জন গ্রেফতারসহ অস্ত্র ও বোমা উদ্ধার হয়॥

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন