বুধবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৭ ০৫:০১:৫৩ পিএম

সপ্তাহ পেরোলেও প্রধান শিক্ষক কর্তৃক ছাত্র পেটানোর ঘটনায় পুলিশের রহস্যজনক নীরবতা

এস. এম. মনিরুজ্জামান মিলন | জেলার খবর | ঠাকুরগাঁও | শনিবার, ১৩ মে ২০১৭ | ১০:৫৯:৩৭ এএম

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্রকে প্যান্টের বেল্ট দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন বড়বাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বোয়ালধার গ্রামের মমতাজ আলী।

গত শনিবার (৬ মে) বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের বোয়ালধার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত নাজমুল হক (১৪) বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চড়তা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র এবং বোয়ালধার গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে। সে বর্তমানে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অভিযোগসুত্রে জানা যায়, পারিবারিক জমি বিরোধকে আক্রোশে গত ৬ মে সকাল ৯ টায় স্কুলে যাওয়ার সময় মমতাজ আলী নাজমুলের পথরোধ করে অতর্কিতভাবে প্যান্টের বেল্ট দিয়ে পিটিয়ে ও লাত্থি মেরে গুরুতর আহত করে। খবর পেয়ে তার বাবা মকবুল হোসেন স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় নাজমুলকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

ঘটনার বিচার চেয়ে মকবুলের বাবা বালিয়াডাঙ্গী থানায় এসে লিখিত অভিযোগ প্রদান করলে ঐদিন বালিয়াডাঙ্গী থানার এসআই সুবোধ ঘটনাস্থলে যান।

অভিযুক্ত মমতাজ মাস্টারের স্ত্রী লুজি আক্তার বলেন, আমার স্বামী অমানবিকভাবে নাজমুলকে পিটিয়েছে বলে স্বীকার করেন। এভাবে ছেলেটাকে পেটানো উচিত হয়নি।

এছাড়াও নাজমুলের মা, দাদা এবং প্রত্যক্ষদর্শী মানুষ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং উপর্যুক্ত বিচার দাবী করেন।

অপরদিকে, বালিয়াডাঙ্গী থানার এসআই সুবোধ ঘটনাটি ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন নাজমুলের বাবা মকবুল হোসেন ও দাদা মাহাতাব উদ্দীন। তারা জানান, বাড়ী হতে ঘটনা দেখে আসার পর থানা হতে এ পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। কথাগুলো বলতে বলতে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নাজমুলের স্বজনরা।

এ বিষয়ে বালিয়াডাঙ্গী থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি মীমাংসার জন্য উভয়পক্ষকে আজ (১২ মে) থানায় ডাকা হয়েছে।

মোবাইলে অভিযুক্ত বড়বাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মমতাজ মাস্টারের সাথে যোগাযোগ করা হলে ব্যস্ততার অজুহাত দেখিয়ে পরে যোগাযোগ করবেন বলে জানিয়ে ফোন বন্ধ করে রাখেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন