সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭ ০৩:৩৯:০১ পিএম

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় জামিন পেলেন বিএনপির আসলাম চৌধুরী

আইন আদালত | বৃহস্পতিবার, ১৮ মে ২০১৭ | ০৫:৪৮:৪৩ পিএম

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী ও বিচার আ ন ম বশিউল্লাহর ডিভিশন বেঞ্চ জামিন মঞ্জুরের আদেশ দেন।

ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের সঙ্গে যোগসাজস করে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের অভিযোগে গত বছরের ২৬ মে রাজধানীর গুলশান থানায় আসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ। এরপর বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব আসলাম চৌধুরীকে রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড এলাকা থেকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। এ মামলায় তিনি কারাগারে যান।

পরে তার জামিন আবেদনের পেক্ষিতে আদালত রুল জারি করেন। রুলে আসলামকে কেন স্থায়ী জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়।

আসলামের পক্ষে ব্যারিস্টার এম মাহবুব উদ্দিন খোকন ও রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ একেএম মনিরুজ্জামান কবির শুনানি করেন।

চট্টগ্রামের নেতা আসলাম চৌধুরীকে বিএনপির নতুন কমিটিতে যুগ্ম মহাসচিব হিসেবে মনোনীত করেন খালেদা জিয়া। ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন দল আর লিকুদ পার্টির সদস্য মেন্দি এন সাফাদি ইসরায়েলের বর্তমান সরকারের উপমন্ত্রী এম কে আয়ুব কারার একজন সাবেক উপদেষ্টা। তিনি নিজের নামে মেন্দি এন সাফাদি সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস প্রতিষ্ঠানটি চালান।

গতবছর ভারতের এক সম্মেলনে মেন্দি এন সাফাদির সাথে সাক্ষাতের ছবি ও খবর গণমাধ্যমে এলে আলোচনার সূত্রপাত হয়। অভিযোগ ওঠে, শেখ হাসিনা সরকারকে উৎখাত করতে বিএনপি ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েল এবং দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের সঙ্গে মিলে ‘ষড়যন্ত্র’ করছে। ইসরায়েল কিংবা মোসাদের সঙ্গে কোনো ধরনের ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়, আসলামের ওই সফর ছিল ‘ব্যক্তিগত’।

তবে আসলাম বা সাফাদি কেউই ভারতে ওই সাক্ষাতের খবর অস্বীকার করেননি। গ্রেপ্তার হওয়ার আগে আসলাম চৌধুরী বলেন, মেন্দি এন সাফাদি যে ইসরায়েলের লিকুদ পার্টির নেতা, তা তিনি সে সময় ‘জানতেন না’। এদিকে, সাফাদিও এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আসলামের সঙ্গে প্রকাশ্য অনুষ্ঠানে দেখা হলেও তাদের মধ্যে ‘কোনও গোপন বিষয়ে’ কথা হয়নি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন