বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৭ ১০:৫৬:৩৩ এএম

চুয়াডাঙ্গায় সৎ মেয়েকে ধর্ষণ করেছে বাবা, রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার

জেলার খবর | চুয়াডাঙ্গা | রবিবার, ২৮ আগস্ট ২০১৬ | ০৩:২৭:০৮ পিএম

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় নির্জন লেবু বাগানে নিয়ে নয় বছরের সৎ মেয়েকে ধর্ষণ করেছে এক পাষণ্ড বাবা। রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
শুক্রবার বিকালে উপজেলার হারদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি জানাজানি হলে শনিবার সকালে ধর্ষক বাবা মনিরুল ইসলামকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে এলাকাবাসী।
পুলিশ ও এলাকা সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার হারদী গ্রামের মতলেব আলীর ছেলে মনিরুল ইসলাম শুক্রবার বিকালে তার প্রথম পক্ষের মেয়ে প্রথম শ্রেণির ছাত্রীকে (৯) ফুঁসলিয়ে মাঠে নিয়ে যায়। সেখানে একটি নির্জন লেবু বাগানে তাকে ধর্ষণ করে।
এ ঘটনায় শিশুকন্যার প্রচুর রক্তক্ষরণ হতে থাকে। কিন্তু বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য মেয়েকে বারবার ভয় দেখিয়ে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন।
অবস্থার অবনতি হলে রাতে ওই শিশুকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসক শিশুকে রাতেই কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।
সৎ বাবাও মেয়ের সঙ্গে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে যান। তিনি রাতেই বাড়ি ফিরে আসেন। এ সময় মাকে একা পেয়ে ধর্ষিত শিশু সব ঘটনা খুলে বলে।
শনিবার সকালে ধর্ষণের ঘটনা জানাজানি হয়ে যায়। এ সময় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ধর্ষক মনিরুল ইসলামকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।
আলমডাঙ্গা থানার এসআই মহাব্বত আলী জানান, ধর্ষিত শিশুর রক্ত মাখা পায়জামা ও ঘটনাস্থল লেবু বাগান থেকে রক্তমাখা লেবুর পাতা ধর্ষণের আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন