মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৭ ০৭:০৮:০৩ পিএম

আহত ১২ বিদ্যুৎকর্মীদের ওপর হামলায়

জেলার খবর | গাজীপুর | শনিবার, ৩ জুন ২০১৭ | ১২:৩৩:১৮ পিএম

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার চকপাড়া গ্রামে গতকাল শুক্রবার বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার ঘটনায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। এতে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ১২ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী আহত হন।

ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২-এর মাওনা আঞ্চলিক কার্যালয় সূত্র জানায়, গতকাল সকালে সমিতির একটি দল চকপাড়া গ্রামে বকেয়া বিল আদায় করতে যায়। চকপাড়া গ্রামের পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহক সাইফুল ইসলামের ২৭ হাজার ৪২০ টাকা, শফিকুল ইসলামের ৩৮ হাজার, সাগর সরকারের ৮৬ হাজার টাকা বিল বকেয়া আছে। এ সময় তাঁরা বিল পরিশোধ করবেন বলে সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আড়াই ঘণ্টা বসিয়ে রাখেন। একপর্যায়ে তাঁরা বকেয়া বিল পরিশোধে টালবাহানা শুরু করেন। পরে পল্লী বিদ্যুতের কর্মীরা বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। এর সময় বকেয়া পরিশোধ ছাড়াই পুনরায় সংযোগ দেওয়ার জন্য ওই ব্যক্তিরা সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আটকে রাখেন। বকেয়া বিল পরিশোধ ছাড়া আবার সংযোগ দিতে অস্বীকৃতি জানালে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (ইউপি) আমিনুল ইসলামসহ তিন ব্যক্তির নেতৃত্বে গ্রামবাসী সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর হামলা চালান। এতে পল্লী বিদ্যুতের জ্যেষ্ঠ প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির, জুনিয়র প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির, প্রকৌশলী (প্রশাসন) ওয়াদুদুর রহমান, প্রকৌশলী অর্জুন কুমার, পরিদর্শক সুমন মিয়া, ফখরুল ইসলাম, লাইনম্যান তাইজউদ্দিন, আসাদ মিয়া, প্রবাল, শামীম হোসেন, রুবেল হোসেনসহ সমিতির ১২ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী আহত হন। তাঁরা স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) তাজুল ইসলাম বলেন, ‘সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবরুদ্ধ করে রাখার খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই। এ সময় ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে আমার ওপরও হামলা চালানো হয়।’

মাওনা ইউপির ২নং ওয়ার্ডের সদস্য আমিনুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, রোজার সময় লাইন বিচ্ছিন্ন করার কারণে ওই হামলার ঘটনা ঘটে। এর সঙ্গে তাঁর কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মাওনা আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপমহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) কামাল পাশা বলেন, তিনি এই ঘটনায় শ্রীপুর থানায় মামলা করেছেন।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান বলেন,  মামলায় তিনজনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে ৪০ জনকে।


খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন