বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৭ ১১:৫২:৩৪ এএম

ওজন কমানো সহ প্রতিদিন মধু দারুচিনি খাবার চমকপ্রদ আরও ৯ উপকারীতা !

লাইফস্টাইল | মঙ্গলবার, ১ আগস্ট ২০১৭ | ১১:৫৯:৩১ এএম

আমাদের দৈনিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দুটি উপাদান হলো মধু এবং দারুচিনি। মধু যে অনেক রোগের চিকিৎসা করতে পারে সেটা বিভিন্ন গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে মধু ও দারুচিনির মিশ্রণ মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ভীষণ উপকারী।রান্নার মশলা হিসেবে দারুচিনি বেশ পরিচিত। আর মধুও আপন গুণে গুণান্বিত। ওষধ হিসেবে এই দুটি প্রাচীনকাল থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে। কোলেস্টোরল বাড়ছে নিয়ন্ত্রণহীন ভাবে? কিংবা বাতের ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছেন? বেশ কয়েক রকমের ভাইরাসের বিরুদ্ধেও লড়াই করে এই মিশ্রণ। সবচেয়ে ভালো বিষয় হলো এই দুটি উপাদানই ভীষণ সহজলভ্য ও সস্তা।সম্পূর্ণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াবিহীন এই মিশ্রণটি দূর করবে অনেকগুলো রোগ। চলুন জেনে নেওয়া যাক মধু-দারুচিনির স্বাস্থ্যগত উপকারসমূহ। বিশেষ করে উচ্চমাত্রার কোলেস্টরেল ও রক্তে চিনির পরিমাণ কমাতে এর জুড়ি মেলা ভার।

১। কোলেস্টোরল নিয়ন্ত্রণে রাখে

প্রতিদিন পৌনে ১ চা চামচ দারুচিনি এবং ৫ চা চামচ মধু দেহের খারাপ কোলেস্টোরল কমাতে বিশেষ ভাবে কার্যকরী। চাইলে এই দুটো একসাথে মিশিয়ে মিশ্রন তৈরি করে খেতে পারেন প্রতিদিন।

২। বাত/আর্থারাইটিস

এক জরিপে দেখা গিয়েছে মধু দারুচিনির পানি পান করার ফলে খুব অল্প সময়ের মধ্যে বাতের ব্যথা কমে গেছে। এক গ্লাস গরম পানিতে দুই টেবিল চামচ মধু আর এক টেবিল চামচ দারুচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এই পানি প্রতিদিন নিয়ম করে সকালে ঘুম থেকে উঠে আর রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করুন। কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এটি আপনার বাতের ব্যথা কমিয়ে দেবে।

৩।হৃদরোগ :

সুস্থ হৃদয়ের জন্য মধু আর দারুচিনি গুঁড়োর একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। এবার রোজ সকালে জ্যাম-জেলি বা মাখনের বদলে এই মিশ্রণটি পাউরুটিতে মাখিয়ে খান। এটা আপনার রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাবে আর হৃদরোগের সম্ভাবনা কমিয়ে দেবে।

৪। ঠাণ্ডা-সর্দি সারায়

মধু ও দারুচিনি উভয়েই রয়েছে অ্যান্টিফাঙ্গাল, অ্যান্টিভাইলার এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা ঠাণ্ডা-সর্দির সমস্যা দ্রুত সারায়। প্রতিদিন মাত্র ১ চা চামচ মধুতে ১/৪ চা চামচ দারুচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে খান। দ্রুত সমস্যার সমাধান পাবেন।

৫। চুল পড়া রোধে

অলিভ অয়েলের সাথে ১ টেবিল চামচ মধু, ১ চা চামচ দারুচিনির গুঁড়া মিশিয়ে পেষ্ট তৈরি করে নিন। এটি চুলের ফাঁকা জায়গায় লাগান (যেখান থেকে চুল পড়ে গেছে সেখানে)। ১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে চুল শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি নতুন চুল গজাতে সাহায্য করবে।

৬। রোগ প্রতিরোধ বৃদ্ধি

নিয়মিত মধু আর দারুচিনির গুঁড়ো খেলে আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। শরীরের ভেতরে অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলো বিভিন্ন রকমের ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করে আপনাকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।


৭। দীর্ঘায়ু লাভ

তিন কাপ পানিতে চার চামচ মধু এবং এক চামচ দারুচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে জ্বাল দিন। এই মিশ্রণটি প্রতিদিন পান করুন। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে আয়ু বৃদ্ধি করে থাকে।

৮। নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ :

সারাদিন যদি তাজা নিঃশ্বাস নিতে চান তাহলে এক গ্লাস গরম পানিতে এক টেবিল চামচ মধু ও দারচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এরপর রোজ নিয়ম করে এই পানি দিয়ে কুলি করুন। সারাদিন নিঃশ্বাস থাকবে একদম তরতাজা।

৯। ফ্লু :

মধুতে থাকা প্রাকৃতিক রোগ প্রতিরোধী ক্ষমতা ফ্লুয়ের জন্য দায়ী ভাইরাসকে ধ্বংস করে এবং ফ্লু থেকে আপনাকে রক্ষা করে।

১০। ওজন কমানো :

বাড়তি ওজন কমাতে চান? মধু ও দারুচিনি কীভাবে ওজন কমাবে। জেনে নিন-

মধু, দারুচিনি ও পানি
ফোটানো পানিতে সমপরিমাণ মধু ও দারুচিনি দিন। প্রতিদিন দুইবার খালি পেটে পান করুন মধু ও দারুচিনির এ মিশ্রণ। ওজন কমাতে সাহায্য করবে এ পানীয়।

মধু, দারুচিনি ও লেবু
লেবুর রস ওজন কমাতে সাহায্য করে। মধু ও দারুচিনির সঙ্গে লেবু মেশালে লেবুর এ কার্যকারিতা বেড়ে যায় দ্বিগুণ। লেবুর রসে মধু ও দারুচিনি মিশিয়ে পান করুন নিয়মিত। এটি দেহের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে বাড়তি ওজন কমাবে।

গ্রিন টি-এর সঙ্গে মধু ও দারুচিনি

প্রতিদিন সকালে গ্রিন টি- এর সঙ্গে মধু ও দারুচিনি মিশিয়ে পান করুন। ওজন কমবে দ্রুত।

মধু, দারুচিনি ও ভিনেগার

দারুচিনি, মধু ও আপেল সিডার ভিনেগারের মিশ্রণ বাড়তি মেদ কমাতে সাহায্য করে। পাশাপাশি ব্লাড সুগারও নিয়ন্ত্রণ করবে এটি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন