বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৭ ০২:১৫:৩৯ এএম

বন্ধুদের এড়িয়ে চলাই ভাল যে কারণে!

লাইফস্টাইল | রবিবার, ১৩ আগস্ট ২০১৭ | ০২:১৫:৫৫ পিএম

জীবনে বন্ধুদের প্রয়োজনীয়তা সবারই আছে। কিন্তু শুধু বন্ধু হলে হয় না। তার জন্য সবার আগে বোঝার চেষ্টা করা উচিত আপনি য়ার সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়েছেন তার স্বরূপটা কী। সত্যিই কি নিখাদ বন্ধুত্ব নাকি অন্য কোনও স্বার্থ জড়িয়ে আছে বন্ধুত্বে। বন্ধু ভাবলেই সবাই বন্ধু হয়ে যায় না। সবার বন্ধুত্ব আসল হয় না।
বন্ধু সে যার কাছে আপনি নিজের মনের সব কথা খুলে বলতে পারবেন। যে আপনার সুখের পাশাপাশি দুঃখের সময়ওই আপনার হাত ধরে থাকবে। আপনার ছোট ছোট গোপন কথাও নিজের মনের মধ্যে লুকিয়ে রাখবে। এমন আরও কতও উদাহরণ রয়েছে যা বলে শেষ করা যাবে না।

কিন্তু সবাই তো আর সমান হয় না। আসল বন্ধুত্ব পাওয়াটা ভাগ্যের বিষয়। তবে সবসময় এই টাইপের বন্ধুদের এড়িয়ে চলার চেষ্টা করবেন।

১। প্রাক্তন প্রেমিক বা প্রেমিকার সঙ্গে বন্ধুত্বঃ
আপনি যদি আপনার প্রাক্তন প্রেমিক বা প্রেমিকার সঙ্গে বন্ধুত্ব রাখার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে কিন্তু নতুন সম্পর্কের কথা তাদের কাছ থেকে এড়িয়ে চলুন। বহু ক্ষেত্রেই দেখা যায় প্রাক্তন হলেও বন্ধুত্বের হাত ধরে তারা আবার আপনার জীবনে ফেরত আসতে চায়। সম্পর্কের নাম বন্ধুত্ব দিলেও প্রাক্তন সম্পর্কের রেশ থেকে তারা বেরতে পারে না।

২। যারা মানুষকে বিচার করেঃ
ছোট খাটো কোনো ঘটনা দিয়েই যারা মানুষকে বিচার করে তেমন মানুষকে বন্ধু হিসাবে না দেখাই ভাল। অর্থাৎ কোনও একটা ঘটনার ভিত্তিতে কারোর সম্পর্কে ধারণা বানিয়ে ফেলেন অনেকে। পরে যদিও তারা ভুল প্রমাণিত হন। এই ধরণের বন্ধু থাকলে কোনও না কোনও ভাবে আপনার নিজস্ব চিন্তাভাবনাও প্রভাবিত হবে। তাই এই ধরণের মানুষ এড়িয়ে চলাই ভাল।

৩। স্বার্থলোভী মানুষঃ
এমন অনেকেই আছেন যারা শুধুমাত্র নিজেদের সুবিধার জন্য বন্ধুত্ব করেন। টাকা-পয়সার নিরিখে আপনাকে মূল্যায়ন করে। আপনার সময় খারাপ এলে তার খোঁজখবর পাওয়া যায় না। তখন আপনি কষ্ট পান। তার থেকে চেষ্টা করুন মানুষ চেনার। এবং তারপর বন্ধুত্ব গড়ে তুলুন।

৪। পরনিন্দা করে যেঃ
বন্ধুদের মধ্যে দেখবেন যারা অন্য কাউকে নিয়ে বেশি আলোচনা করছেন তাদের প্রথম থেকেই একটু এড়িয়ে চলুন। কারন অন্য লোকের কথা যেমন সে আপনার কাছে বলছে, মাথায় রাখবেন আপনার কথাও কিন্তু তেমন ভাবেই অন্য লোকের কাছে যাচ্ছে।

সূত্রঃ বাস্টেল।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন