বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭ ০৪:৪৭:২৬ এএম

রোহিঙ্গাদের জন্য বিএসএমএমইউয়ের মেডিক্যাল ক্যাম্প

স্বাস্থ্য | শুক্রবার, ৬ অক্টোবর ২০১৭ | ০৫:৪৮:৫৫ এএম

রোহিঙ্গাদের চিকিৎসা সেবা প্রদানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প করেছে।

বুধবার কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী অস্থায়ী ক্যাম্প-২ এ দুই দিনব্যাপী ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এ সময় তিনি তার বক্তব্যে অত্যন্ত সময়োপযোগী মানবিক এ উদ্যোগের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। গুরুত্বপূর্ণ এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএসএমএমইউয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান।

সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের প্রতি যে সহানুভূতি দেখিয়েছেন এবং উদ্যোগ নিয়েছেন বিশ্বের ইতিহাসে তা নজিরবিহীন। অথচ বিএনপি অসহায় রোহিঙ্গাদের নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে। বিএনপি রোহিঙ্গা সমস্যাকে ইস্যু করে দেশের স্থিতি নষ্ট করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চায়। বিএনপি মাঝে মাঝে কক্সবাজারে আসে লোক দেখাতে ও ফটোসেশনের জন্য। তবে সরকার এ সমস্যা সমাধানে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই দিনব্যাপী ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের চিকিৎসাসেবার দেওয়ার জন্য পর্যাপ্তসংখ্যক চিকিৎসক, নার্স, টেকনিশিয়ানসহ সাপোর্টিং স্টাফ আছে এবং প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র রয়েছে। প্রয়োজনে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পের সময় আরো বাড়ানো হতে পারে। অথবা পরবর্তী সময়ে আবারো এই সেবামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

উপাচার্য পরে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) উদ্যোগে নেওয়া ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পের কার্যক্রমও পরিদর্শন করেন। সেখানে উপাচার্যকে স্বাগত জানান বিএমএ-এর কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক ডা. জহুরুল হক সাচ্চু।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আব্দুল্লাহ আল হারুন, পরিচালক (পরিদর্শন) অধ্যাপক ডা. এ কে এম সালেক, রেসপিরেটরি মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. একেএম মোশাররফ হোসেন, অবস অ্যান্ড গাইনি বিভাগের অধ্যাপক ডা. শিরিন আক্তার বেগম, চিফ অ্যাস্টেট অফিসার ডা. এ কে এম শরীফুল ইসলাম, উপপরিচালক (হাসপাতাল) ডা. মো. খোরশেদ আলম প্রমুখ।

৫০ সদস্য বিশিষ্ট ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পে অর্থোডনটিকস (দন্ত) বিভাগ, ইন্টারনাল মেডিসিন, অবস অ্যান্ড গাইনি, চর্ম ও যৌনব্যাধি, জেনারেল শিশু, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগ, কার্ডিওলজি বিভাগ, ফিজিক্যাল মেডিসিন অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন, নাক, কান, গলা বিভাগসহ বিভিন্ন বিভাগের অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক, কনসালটেন্ট, মেডিক্যাল অফিসার ও রেসিডেন্ট চিকিৎসকরা, সিনিয়র স্টাফ নার্স, টেকনিশিয়ান, ফার্মেসি সহকারিসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সাপোর্টিং স্টাফ সরাসরি চিকিৎসা কার্যক্রমে অংশ নেন।

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী অস্থায়ী ক্যাম্প-২ এ নেতৃত্ব দেন পরিচালক (পরিদর্শন) ও ফিজিক্যাল মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ কে এম সালেক। কুতুপালং অস্থায়ী ক্যাম্প-১-এ নেতৃত্ব দেন রেসপিরেটরি মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. একেএম মোশাররফ হোসেন।

মোট ১০টি সেন্টারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকরা সকাল ১১টা থেকে বিকেলে ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে রোহিঙ্গা নারী, শিশু, বৃদ্ধ, যুবকসহ বিভিন্ন বয়সের রোহিঙ্গাদের চিকিৎসাসেবা প্রদান করেন। রোহিঙ্গাদের চিকিৎসাসেবা প্রদানের পাশাপাশি বিনামূল্যে ওষুধপত্র প্রদান, রোহিঙ্গা শিশুদের ড্রাইফুড প্রদানসহ রোগীদের ইসিজি ও রক্ত পরীক্ষা করা হয়।

আগামীকাল সকাল ৯টা ৩০মিনিটে উভয় ক্যাম্পের ১০টি সেন্টারে এ মহতী ও মানবিক চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের সেকশন অফিসার (জনসংযোগ) প্রশান্ত কুমার মজুমদার।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন