বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ ০২:০৩:৪৭ পিএম

নওগাঁয় স্বামীর বিরুদ্ধে গৃহবধূ হত্যার অভিযোগ

জেলার খবর | নওগাঁ | শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৭ | ০৬:৩১:৪৯ পিএম

নওগাঁয় কল্পনা (২২) নামের এক গৃহবধুর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার পরিবারের অভিযোগ স্বামী তাকে নির্যাতন করে তাকে হত্যা করেছে। পরে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার ঋষি দেওয়ান পাড়া গ্রামের মোকলেছুর রহমানের ছেলে সুমন আলী (২৮)র সাথে প্রায় দুই বছর পূর্বে নাটোর জেলার বাগাতীপাড়া উপজেলার মারিয়া গ্রামের আইয়ুব আলীর মেয়ে কল্পনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকতো।

নিহত কল্পনার বাবা আয়ুইব আলী জানান, সুমন আমার মেয়ের উপর প্রায় নির্যাতন চালাতেন, সুমন আমার মেয়েকে নির্যাতন করে হত্যা করেছে। ৫ থেকে ৭ দিন আগে কাজ করার উদ্দেশ্যে সুমন আলী ও তার স্ত্রী কল্পনাকে বাড়ি থেকে নারায়নগঞ্জ নিয়ে যান।

শুক্রবার সুমন আলী হঠাৎ করেই তার স্ত্রী কল্পনার মৃতদেহ নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসেন। মেয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে তিনিসহ পরিবারের লোকজন ছুটে যান জামাইয়ের বাড়ি। মেয়ের মৃতদেহ দেখে সন্দেহ হওয়ায় থানা পুলিশে সংবাদ দিলে নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রইচ উদ্দিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট শেষে বিকাল ৪ টার দিকে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন।

এব্যাপারে এসআই রইচ উদ্দিন জানান, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে গৃহবধূ কল্পনার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। গৃহবধূ কল্পনা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি করছে স্বামী সুমন আলী। ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর বিষয়টি জানা যাবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন