শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৯:৩৭:১৩ এএম

এবার ‘ব্লু হোয়েলের’ শিকার দশম শ্রেণীর ছাত্র

জেলার খবর | গোপালগঞ্জ | মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০১৭ | ১০:০৪:৪০ এএম

এবার গোপালগঞ্জের রামদিয়া বাজারে ‘ব্লু হোয়েল গেমের শিকার হয়ে আত্মহত্যা’ করেছে রাফিকুল ইসলাম পার্থ (১৬) নামের ১০ম শ্রেণীর এক ছাত্র। সোমবার বিকেল ৪টার দিকে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত রাফিকুল ইসলাম পার্থ কাশিয়ানী উপজেলার চাপ্তা গ্রামের আবুল হোসেন তালুকদারের ছেলে। সে রাতইল নায়েবুন্নেছা ইনস্টিটিউটের ১০ শ্রেণীর ছাত্র। পার্থ রামদিয়া বাজারে বড় ভাই সৌরভ তালুকদারের বাসায় থেকে লেখাপড়া করতো।

নিহতের বড় ভাই সৌরভ তালুকদার জানান, ‘আমি দুপুরে বাসায় বাজার দিতে এসে দেখি রুমের দরজা বন্ধ। পরে লোকজন নিয়ে দরজা ভেঙে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে পার্থকে ঝুলে থাকতে দেখি।’

নিহতের চাচাতো ভাই ইলিয়াস তালুকদার বলেন, সে অনেকটা চুপচাপ স্বভাবের ছিল। বেশি মানুষের সাথে মেলামেশা করতো না। বেশিরভাগ সময় ঘরের মধ্যেই কাটাতো। সম্প্রতি সে পড়াশোনায় খুব অমনোযোগী হয়ে পড়ে। তার স্কুলের শিক্ষকরা বিষয়টি আমাকে জানান। আমি তার পরিবারকে বিষয়টা জানাই।

কাশিয়ানী রামদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. শামীম উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে রামদিয়া বাজার এলাকার একটি পাঁচতলা ভবনের তৃতীয় তলার একটি রুম থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহতের সুরতহাল করা হয়েছে।

তিনি বলেন, নিহতের বাম হাতে ব্লেড দিয়ে কেটে তিমি মাছ আঁকা ও এফ-৫৭ লেখা এবং বুকে ক্রস চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে- ওই ছাত্র ব্লু হোয়েল গেম খেলে এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে।

কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ. কে. এম আলীনূর হোসেন বলেন, ‘ব্লু হোয়েল গেম খেলেই সে আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার রুম থেকে একটি ল্যাপটপ, একটি ভাঙা মোবাইল ফোন ও একটি ডায়েরি জব্দ করা হয়েছে।’

লাশ উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন