শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১২:২০:৪৪ পিএম

সমাবেশকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতাকর্মীদের নির্ঘুম রাত

রাজনীতি | রবিবার, ১২ নভেম্বর ২০১৭ | ০২:০৮:৪৬ পিএম

দীর্ঘ দিন পর রাজধানীতে সমাবেশর অনুমতি পাওয়ায় উৎসহ উদ্ভিপনার শেষ নেই বিএনপিতে। সমাবেশকে কেন্দ্র করে শনিবার দুপুর থেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মাঠ পরিদর্শেন সিনিয়র নেতারা গেলেও কমতি ছিলনা কর্মীদেরও। সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হয় মূল মঞ্চ তৈরি কাজ। সেই কাজকে ঘিরেও নেতাকর্মীর উৎসহর কোন অংশেই কমতি নেই। তাই সন্ধ্যা থেকে দলের অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা ভিড় জমাতে থাকে সমাবেশ স্থলে।

নেতাকর্মীরা বলছে, যে কোন ধরনের পরিস্থিতি এড়াতে প্রস্তুত রয়েছে তারা। তাই তারা সারা রাত জেগে পাহারা দেবেন মঞ্চসহ পুরো সমাবেশস্থল। বিশেষ করে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে।

এই বিষয় নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারি বাবু বলেন, অনেকদিন পর বিএনপি চেয়ারপারসনের জনসভা। এখনে তিনি দশেরে মানুষের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখবেন। ইতিমধ্যে ঢাকার আশ-পাশের বিভিন্ন জেলা থেকে নেতাকর্মীরা রাজধানীতে প্রবেশ করছেন। তারা এখানে আসতেছে দেখতেছে। তাদের সকলের মধ্যে এক ধরণের উৎসাহ কাজ করছে। তিনি বলেন, আমরা আশা করবো আমাদের শান্তিপূর্ণ এই সমাবেশে সরকার সহযোগিতাা করবে।

দুুপুরের পর থেকে সোহরাওয়ার্দীতে থাকা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, বাকশালী সরকার আমাদেরকে দীর্ঘদিন থেকে সভাসমাবেশ করতে দেয় না। তাই এই সমাবেশের অনুমতি পাওয়ায় আমাদের নেতাকর্মীদের মাঝে এক ধরনের আনন্দ উল্লাসের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। সবাই নিজ থেকেই দলকে ভালোবেসে এখানে একত্রিত হচ্ছে। যদি ও দুপুর ২টায় এই সমাবেশ আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হবে তার পরেও সারা রাত আমরা এখানে থেকেই মঞ্চসহ আশ-পাশের সব জাগায় দেখে রাখবো। যেন করে কোন সমস্যা না হয়।

অপর আরেক যুগ্ম সম্পাদক আবুল হাসান বলেন, আসলে সমাবেশ শুরু হবে দুুপুর ২টা থেকে। তার পরেও আমাদের মধ্যে তো এক ধরনের চিন্তা কাজ করছে কালকে কি হবে না হবে। তবে এই সমাবেশকে ঘিরে আমাদের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্ভিপনা আছে। তারা সবাই এখনে আছে এবং সমাবেশ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তারা এখনে থাকবেন। যাতে করে কোন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয়।

এই দিকে ছাত্রদল ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি জহির উদ্দিন তুহিন বলেন, সর্বকালের সর্বশেষ্ঠ সমাবেশ হবে আজ। সমাবেশে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বক্তব্য রাখবেন। আর তার এই বক্তব্য শুনার জন্য দেশের মানুষ অধির হয়ে অপেক্ষা করছে। উপস্থিতির কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সর্বকালে সর্ববৃহত্ত সমাবেশ হবে আজকের এ সমাবেশ।

অপর দিকে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে সমাবেশের অনুমতি পাওয়ার পর থেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করে বিএনপির সিনিয়র নেতৃবিন্দু। সন্ধ্যা থেকে দলের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাজাহান, আববদুল্লাহ আল নোমান, উপদেষ্টা আবদুসালাম, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কমিবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শরীফুল আলম, বিএনপি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিবুন নবী-খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী উপস্থিত থেকে মঞ্চে নির্মানের কাজ পরিদর্শন করছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন