শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭ ০৯:৩৯:৪৪ পিএম

৭ই মার্চ কে জাতীয় দিবস ঘোষনার দাবি নিয়ে রাজপথে এমপি শাওন

সাদির হোসেন রাহিম | জেলার খবর | ভোলা | মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৭ | ০৭:৫৩:১০ পিএম

ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নূরুন্নবী চৌধুরী শাওনের সহযোগীতায় লালমোহন-তজুমদ্দিন ছাত্র-ছাত্রী কল্যাণ সমিতি ও লালমোহন ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ৭ই মার্চ কে জাতীয় ভাষণ দিবস ঘোষণার দাবি জানিয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে সমাবেশ ও র্যালির আয়োজন করা হয়।

ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নূরুন্নবী চৌধুরী শাওনের সভাপতিত্বে সকল শ্রেনী পেশার প্রায় লাখো মানুষের উপস্থিতিতে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, আইনজীবি, রাজনীতিবিদ ও বরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিবর্গরা সমাবেশে বক্তব্য প্রদান করেন।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণকে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দেওয়ার মাধ্যমে এটি বিশ্ব সম্পদে পরিণত হয়েছে। এর মাধ্যমে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের মর্যাদা সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পেয়েছে। বাঙ্গালি জাতিকে সংক্ষিপ্ত ভাষণের মধ্য দিয়ে রাষ্ট্র গঠনের দিকনির্দেশনা দিয়ে অসাধারণ দৃষ্টান্ত উপস্থাপন করেছেন। দীর্ঘদিন পরে হলেও ঐতিহাসিক ভাষণটি বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। এই ভাষণে বপন করা হয়েছে জাতিসত্তা বিকাশের বীজ। যার কারনে এটির সফল বাস্তবায়ন হয়েছে। স্বাধীনতা ঘোষণার এ দিনটিকে জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণা দেয়া অত্যান্ত জরুরি হয়ে পড়েছে।

এমপি শাওন বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙ্গালিদের ঐক্যবদ্ধ করে একটি স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে যে ভাষণ দিয়েছেন তা আজ স্বীকৃতি লাভ করেছে। সে কারণে ইউনেস্কোর সকল সদস্যদের অভিনন্দন জানাই।

তিনি আরো বলেন, ইউনেস্কো ঐতিহাসিক ভাষণটিকে মেমোরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড অর্থাৎ বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। তাই ৭ই মার্চকে জাতীয় ভাষণ দিবস ঘোষণার দাবি করছি। ইউনেস্কোর স্বীকৃতির ফলে বিশ্ব এখন বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে আরো তথ্য জানতে পারবে। একইসঙ্গে আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারবে বিশ্ব সম্প্রদায়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম, নোবিপ্রবি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ওয়াহীদুজ্জামান, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী, সংসদ সদস্য কাজী রোজী, আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল করিম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, কবি অসীম সাহা, কবি নুরুল হুদা প্রমুখ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন