সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৮ ১০:০৩:৩৮ পিএম

ঢাকা বিমানবন্দরে দুর্ঘটনার কবল থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেলো ৪টি বিমান!

জাতীয় | শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৭ | ০৯:৩৯:৩৬ পিএম

রাজধানীর হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুর্ঘটনার কবল থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেলো ৪টি বিমান। শুক্রবার সকালে বিমানবন্দরের রানওয়েতে এই ঘটনা ঘটে।

সকালে পৃথক দু’টি ঘটনায় ৪টি উড়োজাহাজ মুখোমুখি সংঘর্ষ হওয়ার মতো ঘটনা থেকে বেঁচে যায়। বিমানবন্দরে কর্মরত একাধিক এয়ারলাইন্সের প্রত্যক্ষদর্শী কর্মর্কতা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

একজন এয়ারলাইন্স কর্মকর্তা বলেন, শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ঢাকা থেকে কলকাতাগামী স্পাইস জেটের একটি উড়োজাহাজ। ৭৭ জন যাত্রী নিয়ে উড্ডয়নের আগে বিমানবন্দরের ট্যাক্সিওয়ে দিয়ে যাওয়ার সময় উড়োজাহাজটির একটি চাকার বিয়ারিং ভেঙে যায় ও ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়।

বিমানবন্দরের ফায়ার সার্ভিস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর বিমানবন্দরের দক্ষিণ পাশের ট্যাক্সিওয়ে দিয়ে শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজ রানওয়েতে প্রবেশ করে। কিছু দূর এগুনোর পর শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজের ওপর দিয়ে রানওয়ের উত্তর পাশে থেকে আরেকটি উড়োজাহাজ উড়ে যায়। পরবর্তী সময়ে শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজটি রানওয়ে থেকে ফিরে আসে।

এর কিছুক্ষণ পর ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ অবতরণের পর রানওয়ে থেকে ট্যাক্সিওয়ে দিয়ে এগিয়ে আসে। ঠিক একই ট্যাক্সিওয়েতে বিপরিত দিক থেকে নভোএয়ারের একটি উড়োজাহাজ এগিয়ে যায়। তবে মুখোমুখি সংঘর্ষ হওয়ার আগেই নভোএয়ারের উড়োজাহাজটি ফিরে আসে।

বিমানবন্দরে কর্মরত একটি এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা দূর থেকে দেখছিলাম, রানওয়েতে শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজ এগিয়ে যাচ্ছে। কিছুক্ষণ পর সেই উড়োজাহাজটির ওপর দিয়ে রানওয়ের অন্য প্রান্ত থেকে ছেড়ে আসা আরকটি উড়োজাহাজ উড়ে গেলো। তার কিছুক্ষণ পরই ট্যাক্সিওয়েতে আরও দু’টি উড়োজাহাজ মুখোমুখি হতে যাচ্ছে। অবশ্য পরে একটি উড়োজাহাজ থেমে যায়। দু’টি ঘটনায় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা ছিল।’

এ বিষয়ে সিভিল এভিয়েশনের সদস্য (অপরেশন) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘বিমানবন্দরে সব উড়োজাহাজ টাওয়ারের নিয়ন্ত্রণে থাকে। বিমানবন্দরের রাস্তা, সাধারণ রাস্তার মতো নয়। কোন উড়োজাহাজ কোন দিক দিয়ে যাবে, তা টাওয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করেই যায়। এমন কোনও ঘটনা ঘটেছে বলে মন হয় না। তবে যদি হয়েও থাকে, সেটি বিপজ্জনক কিছু নয়।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন