মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ ০১:৪২:৩৩ এএম

মাদারীপুরে প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে শিশুকে ধর্ষণ!

জেলার খবর | মাদারীপুর | শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭ | ১২:০২:৩৬ পিএম

মাদারীপুরে প্রাইভেট পড়ানোর কথা বলে আট বছরের দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গৃহশিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) রাতে জেলার শিবচর উপজেলার কাবিলপুর থেকে অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক সুজনকে (২০) আটক করা হয়। সুজন উপজেলার কাবিলপুর গ্রামের ধলু মোল্যার ছেলে।

শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) সকালে উন্নত চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের মোহনপুর গ্রামের এক ব্যবসায়ীর দ্বিতীয় শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে ১ হাজার টাকা মাসিক চুক্তিতে দেড় বছর ধরে প্রাইভেট পড়িয়ে আসছিলেন নুরুল আমিন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র অভিযুক্ত সুজন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সুজন ওই ছাত্রীকে পড়াতে যান। এসময় ওই ছাত্রীর বাবা-মা বাড়িতে না থাকায় সুজন মেয়েটিকে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে যৌন নির্যাতন করে। কোনো সাড়া-শব্দ না পেয়ে মেয়েটির দাদী হঠাৎ ঘরে ঢুকলে সুজনকে অপ্রীতিকর অবস্থায় দেখে চিৎকার দিলে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

চিৎকারের শব্দ শুনে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এসে আহতাবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। বিষয়টি থানায় জানালে রাতেই সুজনকে আটক করে পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শিবচর থানার অফিস ইনচার্জ জাকির হোসেন বলেন, মেয়েটিকে ভয় দেখিয়ে যৌন নির্যাতন করেছে বলে আমরা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। খবর পেয়ে রাতেই অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক সুজনকে আটক করেছি। এ বিষয়ে ওই ছাত্রীর পরিবার থানায় মামলা করেছে। তবে ধর্ষণের বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। শনিবার সকালে গাইনি বিভাগের চিকিৎসক শিশুটির পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন