সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮ ১২:৪৮:৩৪ এএম

জাতীয় দলে ফিরতে বেশি বেশি চার-ছক্কা হাঁকাতে হবে!

খেলাধুলা | শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭ | ০৪:২৬:১২ পিএম

আবার পাকিস্তান জাতীয় দলে ফিরতে পারবেন ফাওয়াদ আলম? পারবেন। তবে তার আগে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানকে পূরণ করতে হবে ছোট্ট একটা শর্ত। বেশি বেশি হাঁকাতে হবে চার-ছক্কা। নির্বাচকদের বোঝাতে হবে তার ভান্ডারে রানপ্রসবা অনেক অনেক শট আছে।

৩২ বছর বয়সী ফাওয়াদের জাতীয় দলে ফেরার প্রশ্নে ছোট্ট এই শর্তটা জুড়ে দিলেন পাকিস্তানের কোচ স্বয়ং মিকি আর্থার। পাকিস্তানের দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ স্পষ্টই বলেছেন, জাতীয় দলে ফিরতে হলে ফাওয়াদকে বেশি বেশি চার-ছয় মারতে হবে।

একদিন আগে ফাস্ট বোলার সোহেল খানের জাতীয় দলে ফেরার সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেছেন পাকিস্তান। তা ৪৩ বছর বয়সী সোহেল হতশাই করেছেন আর্থার। পাকিস্তান কোচ এই পেসারকে সরাসরিই বলে দিয়েছেন, জাতীয় দলে ফেরার জন্য তার বয়সটা একটু বেশিই হয়ে গেছে। সুতরাং তার ফেরার সম্ভাবনা নাই!

সোহেলের দিকে তাকিয়ে ফাওয়াদ তাই নিজেকে ভাগ্যবান ভাবতেই পারেন। কারণ, সোহেলের মতো তার জন্যও জাতীয় দলের দরজাটা একেবারে বন্ধ করে দিচ্ছেন না কোচ। শুধু জুড়ে দিয়েছেন ছোট্ট একটা শর্ত।

ফাওয়াদ পারবেন এই শর্ত পূরণ করে আবার জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তুলতে? উত্তরটা দেবে সময়। তবে শর্তটা পূরণ করতে হলে কঠোর পরিশ্রমই করতে হবে ফাওয়াদকে। আমূলে বদলে ফেলতে হবে নিজের ব্যাটিং দর্শন। রক্ষণাত্মক কৌশল বাদ দিয়ে খেলতে হবে আগ্রাসী ক্রিকেট।

শুধু টি-টুয়েন্টি নয়, আধুনিক ক্রিকেটে ওয়ানডে-টেস্টেও বাহারি সব শটে রানের চাকা দ্রুত ঘুরানোর দিকেই মনোযোগ ব্যাটসম্যানরা। দলগুলোর চাদিহাও ধুমধারাক্কা ব্যাটসম্যানদেরই। ধীরস্থীর ব্যাটিংয়ের যুগ শেষ! সে কারণেই ব্যাটে রান থাকা সত্ত্বেও জাতীয় দলে ফিরতে পারছেন না ফাওয়াদ।

ধৈর্যশীল ব্যাটিংই ফাওয়াদের মূলমন্ত্র। ফলে ২০১০ সালের পর আর আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টি খেলার সুযোগ পাননি। সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন সেই ২০০৯ সালে। তুলনায় তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারটা উজ্জ্বল। ৩টি টেস্ট ও ২৪টি টি-টুয়েন্টির পাশাপাশি ওয়ানডে খেলেছেন ৩৮টি। যার সর্বশেষ ওয়ানডেটি খেলেছেন ২০১৫ সালে। গড়ও দারুণ, ৪০.২৫। কিন্তু স্ট্রাইক রেট মাত্র ৭৪! আধুনিক ক্রিকেটের সঙ্গে যা একদমই বেমানান।

ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত রান করা সত্ত্বেও তাই জাতীয় দলে ফিরতে পারছেন না ফাওয়াদ। তবে চেষ্টা করে যাচ্ছেন ব্যাটিং স্টাইল বদলে ফেরার। সেই উদ্দেশ্যেই তিনি এখন যোগ দিয়েছেন পাকিস্তানের জাতীয় ক্রিকেট একাডেমীতে (এনসিএ)। পাকিস্তানের জনপ্রিয় ইংরেজি দৈনিক ডনকে আর্থার বলেছেন, এনসিএ-তে ফাওয়াকে পরখ করে দেখবেন নির্বাচকরা। ফিটনেসের পাশাপাশি খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখবেন তার ব্যাটিং।

‘এটা ভালো যে ফাওয়াদ এনসিএতে চলে এসেছে। দীর্ঘ মেয়াদী ক্রিকেটের জন্য আমরা তার ফিটনেস সম্পর্ক জানতে পারব। মূলত তার (ফাওয়াদ) ব্যাটিং টেকনিকের দিকেই নজর দেওয়া হবে। দেখা হবে তার অস্ত্রাগারে কতগুলো শট আছে পুল-বিগ শট আছে এবং সে কতগুলো চার-ছক্কা হাঁকাতে পারে।’

ওয়ানডে আর টি-টুয়েন্টিতে পাকিস্তান এখন যথেষ্টই ভালো। তাই তাদের সমস্ত মনোযোগ এখন টেস্ট ক্রিকেটের দিকে। গত মাসে শ্রীলঙ্কার কাছে ২-০তে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর পাকিস্তান টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের ৭ নম্বরে নেমে গেছে। কোচ আর্থার তাই বলেছেন, ‘আমাদের টি-টুয়েন্টি দল ভালো করছে। আমি মনে করি, আমাদের ওয়ানডে দলটাও বেশ ভালো করছে। এখন আমাদের দরকার টেস্ট ক্রিকেটে সেরা পর্যায়ে ফেরার দিকে মনোযোগ দেওয়া।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন