রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৮ ০৬:৪১:৩৩ পিএম

মিস ওয়ার্ল্ড মানশির অজানা অধ্যায়

বিনোদন | রবিবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৭ | ০১:২৭:৩৮ পিএম

গতকাল শনিবার চীনের সান্যা সিটি এরেনাতে মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৭ প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনাল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সেরার মুকুট জিতেছেন ভারতের মানশি চিল্লার। বিভিন্ন দেশের ১১৮জন প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে খেতাব জেতেন তিনি।

১৯৯৭ সালের ১৪ মে ভারতের হরিয়ানার একটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মানশি। তার বাবা ডক্টর মিত্র বসু চিল্লার ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের একজন বিজ্ঞানী। মা নীলাম চিল্লার ইনস্টিটিউট অব হিউম্যান বিহেভিয়ার অ্যান্ড অ্যালাইড সায়েন্স-এর সহযোগী অধ্যাপক ও নিউরোকেমিস্ট্রি বিভাগের প্রধান। মানশির আরো দুজন ভাই-বোন রয়েছে। এর মধ্যে একজন এলএলএম পড়ছেন।

দিল্লির সেইন্ট থমাস স্কুল ও মিরান্ডা হাউসের শিক্ষার্থী ছিলেন মানশি। বর্তমানে ভগত ফুল সিং গভঃ মেডিক্যাল কলেজে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করছেন। তিনি গাইনি অনকোলজি বিষয়ে পড়ছেন।

গত ২৫ জুন যশ রাজ স্টুডিওতে অনুষ্ঠিত ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া ২০১৭ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন মানশি চিল্লার। এছাড়া এতে মিস ফটোজেনিক অ্যাওয়ার্ডও জেতেন তিনি। ছোটবেলায় দাদির শাড়ি পরতেন এখন তিনি বিশ্বের অন্যতম সেরা সুন্দরী। হরিয়ানার একটি গ্রাম থেকে আসা মানশি এখন কোটি কোটি তরুণীর আদর্শ। তবে তার আদর্শ ভারতের হয়ে প্রথম মিস ওয়ার্ল্ড খেতাব জেতা রেইতা ফারিয়া। তিনিও পেশায় একজন চিকিৎসক ছিলেন। চলতি ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া খেতাব জেতার আগে স্কুল ও কলেজের বিভিন্ন সুন্দরী প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন। বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছেন তিনি।

তার দাদির মতে, ছোটবেলা থেকেই সাজগোজের শখ ছিল তার। অন্যরা যে সময় পুতুল খেলত ও তখন কসমেটিকস নিয়ে পড়ে থাকত। নিত্য নতুন পোশাক পরে সাজতে খুব পছন্দ করত।

মানশি বেশ স্বাস্থ্য সচেতন। দিনের নির্দিষ্ট সময় জিমে গিয়ে শারীরিক কসরত করতে তার কখনো ভুল হয় না। ছোটবেলা থেকেই বিদ্যালয়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা ও সামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতেন। তিনি একজন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত বেলে ড্যান্সার। এছাড়া কুচিপুরি নৃত্যে প্রাতিষ্ঠানিক তালিম নিয়েছেন। সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর বিষয়ে সচেতনতা তৈরির কাজও করেন তিনি।

তার জীবনে মায়ের প্রভাব সবচেয়ে বেশি বলে জানিয়েছেন মানশি। পেশায় একজন চিকিৎসক হওয়া সত্বেও মেয়ের সব বিষয়ে দেখাশোনা ও সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করেছেন তার মা।

ভারতীয় অভিনেতাদের মধ্যে এই সুন্দরীর পছন্দ হৃতিক রোশানকে। হলিউডের মধ্যে প্রিয় অভিনেতার তালিকায় রয়েছেন হিউ জ্যাকম্যান ও লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। সিনেমা দেখতে খুবই পছন্দ করেন মানশি। বর্তমানে তার প্রিয় সিনেমার তালিকায় রয়েছে আমির খানের দঙ্গল।

ভ্রমণে আগ্রহ রয়েছে মানশির। ভারতের পাশাপাশি বিদেশের বিভিন্ন আকর্ষণীয় পর্যটন স্থানে ভ্রমণ করেছেন মানশি। বলতে গেলে ভ্রমণ তার শখ। সময় পেলেই ব্যাগ গুছিয়ে ভ্রমণে বেড়িয়ে পড়েন এই সুন্দরী।

পাঁচ ফুট আট ইঞ্চি উচ্চতার মানশি অনেক প্রত্যাশা নিয়েই চীনে অনুষ্ঠিত এবারের সুন্দরী প্রতিযোগিতায় গিয়েছিলেন। শুরু থেকেই নিজের যোগ্যতার পরিচয় দিয়ে আসছিলেন। শেষ পর্যন্ত সেরার মুকুট জিতে সকলের প্রত্যাশা পূরণ করেছেন। এখন ‘প্রজেক্ট শক্তি’র আওতায় স্বাস্থ্যসম্মত মেন্সট্রুয়েশন নিয়ে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তিনি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন