শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০২:১০:৩৩ পিএম

পরোক্ষভাবে রোহিঙ্গাদের দুষলেন সু চি

আন্তর্জাতিক | সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০১৭ | ১১:০৪:৫৫ পিএম

আসেম সম্মেলনে রোহিঙ্গা ইস্যুতে কোনো আশার বাণী শোনালেন না মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি। বরং পরোক্ষভাবে তিনি রোহিঙ্গাদের সন্ত্রাসী বলে অভিহিত করেছেন এবং মিয়ানমারে সংঘাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য তাদেরকেই দায়ী করেছেন।

মিয়ানমারের রাজধানী নেপিদোতে চলমান এশিয়া-ইউরোপের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনের (আসেম) উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি ইঙ্গিতে এ কথা বলেছেন।

চাপের মুখে রোহিঙ্গা মুসলমানদের মিয়ানমার ত্যাগের কথা উল্লেখ না করে সুচি পরোক্ষভাবে তাদেরকে অবৈধ অভিবাসী বলে অভিহিত করেন।তার দেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য রোহিঙ্গাদেরকেও দায়ী করেন সু চি।

তিনি বলেছেন, অস্থিতিশীলতা ছড়িয়ে পড়ায় এখন বিশ্ব এখন নতুন যুগের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বব্যাপী সংঘাত নতুন করে হুমকি ও জরুরি অবস্থাকে জাগিয়ে তুলছে।

ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী বলেন, ‘অবৈধ অভিবাসীরা সন্ত্রাসবাদ ও সহিংসতা, সামাজিক অনাচার এমনকি পারমাণবিক যুদ্ধের হুমকিকে বিস্তৃত করছে। সংঘাত সমাজ থেকে শান্তিকে অপসৃত করছে, অনুন্নয়নকে পেছনে ফেলে রেখে যাচ্ছে, লোকজন এমনকি দেশগুলোকে একে অন্যের কাছ থেকে দূরে ঠেলে দিচ্ছে।’

মিয়ানমারের সেনা ও উগ্রপন্থি বৌদ্ধদের হামলার মুখে গত ২৫ আগস্ট থেকে ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান প্রাণ বাঁচাতে নিজেদের ভিটেমাটি ছেড়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে এই সহিংস আচরণকে ‘জাতিগত শুদ্ধি অভিযান’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এরপরেও সংকট নিরসনে সম্পূর্ণ নীরব ভূমিকা পালন করছেন সু চি।বরং সেনাবাহিনীর সঙ্গে সুর মিলিয়ে একাধিকবার তিনি বলেছেন, রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের নাগরিক নয়।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন