মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৩:৪২:০৭ এএম

এই মাশরাফিই অবসর নিতে বাধ্য হয়েছিলেন

খেলাধুলা | মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ০৩:২৮:৫৮ পিএম

২৪ বলে প্রয়োজন ছিল ৩৫ রান, হাতে ৭ উইকেট। উইকেটে শতরানের জুটি গড়া সেট দুই ব্যাটসম্যান। সেই মুহূর্তে বোলিংয়ে এসে ওভারে ২ রান। নয়ের নিচে থাকা আস্কিং রান রেট এক ধাক্কায় ১১।

ত্রয়োদশ ওভারের শেষ বলটির কথা মনে করিয়ে দেই। থিসারা পেরেরার বলে দারুণ টাইমিং করেছিলেন সাব্বির। কাভার-পয়েন্টে দুর্দান্ত রিফ্লেক্সে সেটি ফেরালেন একজন। এক রান হলো, বাঁচালেন নিশ্চিত আরও তিনটি রান।

১৮তম ওভারের পঞ্চম বল। এবারও বোলার পেরেরা, ব্রেসনানের ব্যাট থেকে বল ছুটছিল গুলির বেগে। পয়েন্টে চিতার ক্ষীপ্রতায় ডাইভ দিয়ে ঠেকালেন একজন। ক্যাচ নিলে অবিশ্বাস্য কিছু হতো। যা হলো, সেটাও কম নয়। স্রেফ ১ রান, আবারও বাঁচল নিশ্চিত ৩ রান।

তিন আর তিন - মোট ছয় রান বাঁচিয়েছেন দুই শটেই। শেষ পর্যন্ত রংপুর রাইডার্স জিতেছে ৭ রানে।

তার দলে এমন ফিল্ডার বেশ কজন, মাঠে যাদেরকে লুকিয়ে রাখতে হয়। তাই তাকে ফিল্ডিং করতে হয় পয়েন্টে, কাভারে, ঘুরে-ফিরে গুরুত্বপূর্ণ পজিশনগুলোতে। ম্যাচের পর ম্যাচ দারুণ বোলিংয়ের কথা আলাদা করে না-ই বললাম।

একই চর্বিত চর্বন। বহুবার বলা কথা। তবু আবার বলতে হচ্ছে। এই ক্রিকেটারকেই কিনা আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি থেকে অবসরে বাধ্য করা হয়েছে!

তার পারফরম্যান্সই বারবার একই কথা বলতে বাধ্য করায়। তার পারফরম্যান্সই তার হয়ে কথা বলে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন