শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ ০৩:১৫:১৪ পিএম

জীবনসঙ্গী বাছার সময় মাথায় রাখুন এই ৫টি বিষয়

বিবিধ | রবিবার, ২৬ নভেম্বর ২০১৭ | ১২:১২:৩৩ এএম

নিজের স্বামী বা স্ত্রীয়ের মধ্যে আমরা সকলেই খুঁজে বেড়াই বিশেষ কয়েকটি গুণ। যেমন, সে যেন সৎ হয়, স্মার্ট, কথাবার্তায় চৌখস হয়, সংসার সামলানোর জন্য যথেষ্ট পারদর্শী হয়, আরও কতও কী! কিন্তু, এমন অনেক ছোট ছোট ব্যাপার থাকে যা হয়তো দৈনন্দিন জীবনে সে ভাবে চোখেই পড়ে না।

একটুতেই বিরক্ত হয়ে যাওয়া, পান থেকে চুন খসলেই চেঁচামেচি করা। অনেক ক্ষেত্রে উল্টোটাও হয়। যেমন, অসম্ভব ধৈর্য, কোনও কিছুতেই বিচলিত না হওয়া। ‘রিলেশনশিপ এক্সপার্ট’-এর মতে, একজন মানুষের অদেখা ছোট কিছু স্বভাবই বলে দেবে, সে স্বামী বা স্ত্রী হিসেবে আক্ষরিক অর্থে ‘ভাল’ হবে। কী সেই গুণাগুণ?

বনসঙ্গী বাছার সময় মাথায় রাখুন এই ৫টি বিষয় :

► ধৈর্য: ট্রাফিক জ্যামে আটকে পড়লে, অনেকেই গালিগালাজ করতে শুরু করে, চেষ্টা করে একটু ফাঁক পেলেই এগিয়ে যেতে, হর্ন বাজায় অনবরত। এমন মানুষ বাড়িতেও যে একটুতেই অধৈর্য হয়ে পড়বে, তা বলাই বাহুল্য। একটি সম্পর্কের জন্য অধৈর্য হওয়াটা বাঞ্ছনীয় নয়।

► রেষারেষি: স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্কে হার-জিতের ব্যাপার না থাকাই ভাল। পরস্পরের সঙ্গে প্রতিযোগিতা না করে, এক জোট হয়ে বহির্বিশ্বের সঙ্গে ‘যুদ্ধ’ করলে নিজেদের উন্নতি হবে।

► সম্পর্ক ঠিক রাখতে নিজেকে বদলান: আপনি কি জেদী! এর ফলে আপনাদের সম্পর্কে মাঝেমাঝেই টানাপোড়েন চলে। নিজেকে সামান্য বদলে দেখুন, ভালই থাকবেন দু’জনে।

► খোলামেলা কথা: নিজেদের যৌন সম্পর্ক নিয়ে খোলামেলা কথা বলুন। এর ফলে নিজেদের মধ্যে দূরত্ব কমবে, সম্পর্কও ঠিক থাকবে।

► সম্পর্ক ঠিক রাখতে অন্যের সাহায্য নিতেই পারেন: অনেক দিনের বিবাহিত জীবন স্বাভাবিকভাবেই অনেক ওঠা-নামার মধ্যে দিয়ে যায়। অনেক সময় নিজেরা চেষ্টা করেও সমস্যার সমাধান হয় না। সে ক্ষেত্রে, অবশ্যই কোনও এক্সপার্ট বা ম্যারেজ কাউন্সিলরের সাহায্য নেওয়া উচিত। এবং আপনি স্বেচ্ছায় সেই সাহায্যের দিকে হাত বাড়ান। --এবেলা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন