শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৬:০৭:১৩ এএম

ব্যবসায়ী থেকে নগরপিতা

রাজনীতি | শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর ২০১৭ | ১১:৪৭:১৫ এএম

তৈরি পোশাক ব্যবসায় নিজের অবস্থার বদল ঘটিয়েছিলেন আনিসুল হক। ঢাকার অবস্থাও বদলে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১৫ সালে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসির) মেয়রের চেয়ারে বসেন; কিন্তু তার সেই স্বপ্ন অপূর্ণই থেকে গেল। লন্ডনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে (বাংলাদেশ সময়) মারা যান ৬৫ বছর বয়সী আনিসুল হক।

১৯৫২ সালে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কবিরহাটে জন্মগ্রহণ করেন আনিসুল হক। তবে তার শৈশবের একটি বড় সময় কাটে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামে নানার বাড়িতে। তার বাবা শরীফুল হক ছিলেন আনসার কর্মকর্তা; মা রওশন আরা হক।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে স্নাতকোত্তর করেন আনিসুল হক। আশির দশকে দেশে তৈরি পোশাক খাতের বিকাশের পর্বে এর সঙ্গে জড়ান তিনি। ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত মোহাম্মদী গ্রুপের চেয়ারম্যান ছিলেন আনিসুল হক। তৈরি পোশাক ছাড়াও এ গ্রুপের রয়েছে বিদ্যুৎ, তথ্যপ্রযুক্তি, আবাসন এবং কৃষিভিত্তিক শিল্প কারখানা। 'ডিজিযাদু ব্রডব্যান্ড লিমিটেড' ও 'নাগরিক টেলিভিশনের' মালিকানাও তার ব্যবসায়ী গ্রুপের।

গত শতাব্দীর আশি থেকে নব্বইয়ের দশকে সুপরিচিত টিভি উপস্থাপক ছিলেন আনিসুল হক। বিটিভিতে (বাংলাদেশ টেলিভিশন) তার উপস্থাপনায় 'আনন্দমেলা' ও 'অন্তরালে' অনুষ্ঠান দুটি পায় তুমুল জনপ্রিয়তা। ১৯৯১ সালের নির্বাচনের আগে বিটিভিতে শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়ার মুখোমুখি একটি অনুষ্ঠানও উপস্থাপনা করেছিলেন তিনি।

২০০৫-০৬ সালে বিজিএমইএ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন আনিসুল হক। পরে সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে ২০০৮ সালে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি নির্বাচিত হন তিনি। ২০১০-১২ মেয়াদে সার্ক চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন আনিসুল হক। এছাড়া বাংলাদেশে বেসরকারি খাতে বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন বিআইপিপিএরও সভাপতি ছিলেন তিনি।

আনিসুল হকের স্ত্রী রুবানা হক মোহাম্মদী গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তাদের ছেলে নাভিদুল হক এবং মেয়ে ওয়ামিক উমাইরা ও তানিশা ফারিয়ামান হকও গ্রুপটির পরিচালক। এ গ্রুপের প্রতিষ্ঠান 'দেশ এনার্জি লিমিটেডের' ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বে রয়েছেন নাভিদুল। ওয়ামিক উমাইরা স্নাতক শেষ করে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থায় কাজ করছেন। যুক্তরাষ্ট্রের বস্টনের সিমন্স কলেজ থেকে স্নাতক করেছেন তানিশা ফারিয়ামান।

বাংলাদেশের বর্তমান সেনাববাহিনীর প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক আনিসুল হকের ভাই। তার আরেক ভাই যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী ইকবাল হক পেশায় চিকিৎসক। মার্কিন নৌবাহিনীতে কর্মরত তার আরেক ভাই হেলাল হক।

২০১৫ সালের সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আনিসুল হক আওয়ামী লীগ থেকে ডিএনসিসির মেয়র পদের জন্য মনোনয়ন লাভ করেন এবং বিজয়ী হন। মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণের পর তিনি ডিএনসিসি মার্কেট চালু, তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড সরিয়ে সড়ক উন্মুক্ত করা, শ্যামলী থেকে আমিনবাজার পর্যন্ত সড়ক পার্কিংমুক্ত ঘোষণা, ফুটপাত দখলমুক্ত করাসহ বেশ কিছু প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেন । এছাড়া নগরীর সৌন্দর্য্য বর্ধনেও মেয়র আনিসুল নিয়েছিলেন বেশকিছু উদ্যোগ।

গত বছরের শুরুতে বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদকদের সঙ্গে এক বৈঠকে এমনই কিছু উদ্যোগের কথা জানিয়েছিলেন মেয়র আনিসুল হক; যার মধ্যে রয়েছে ঢাকা নগরীকে সুন্দর করতে যানজট নিরসনে তেজগাঁওসহ ১০টি এলাকার রাস্তা দখলমুক্ত করা, ২২টি ইউলুপ নির্মাণ, ৩ হাজার বাস নামানো, বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ৭২টি সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন স্থাপন, সবুজায়নে ইকো বাস সার্ভিস চালু, ২০ হাজার বিলবোর্ড উচ্ছেদ ও পরিকল্পিত বিলবোর্ড স্থাপন, জলাবদ্ধতা নিরসনে উদ্যোগ গ্রহণ, সড়কে এলইডি বাতি সংযোজন, প্রধান সড়কগুলোকে রিকশামুক্ত করা, গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সিসি ক্যামেরা স্থাপন, পাবলিক টয়লেট স্থাপন।

সূত্রঃ সমকাল।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন