বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ ০৭:০৩:০৬ এএম

কালিহাতীতে ফের অপহরন কলেজ ছাত্রী নুপুর

জেলার খবর | টাঙ্গাইল | রবিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০১৭ | ১২:০৩:৩৬ পিএম

টাঙ্গাইলের কালিহাতী কলেজের একাদশ শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী নুপূর আক্তারকে ফের অপহরন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কলেজ ছাত্রী নুপুর আক্তারের মা শাহিনুর আক্তার বাদী হয়ে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে ৯ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে জানাযায়, কালিহাতী পৌর এলাকা ঘূনী গ্রামের শামসুল হকের মেয়ে ভিকটিম নুপূর আক্তারকে একই গ্রামের ১ নং আসামী সাদেক আলীর ছেলে রানা (২২) বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে কু-প্রস্তাব দিত এবং জোর করে আজ হোক কাল হোক জোর করে বিয়ে করবে বলে হুমকী দিয়ে আসছিল।

এই বিষয়টি রানার পরিবারকে বার-বার অবহিত করলেও তারা কর্ণপাত করেনি। তারই ধারাবাহিকতায় গত (২৩ নভেম্বর) মধ্য রাতে নুপুর প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিলে টয়লেটে যাওয়ার পথে অভিযোগের ৫নং সাক্ষী নুপুরের নানী তারাবানু ঘরের বাহিরে বের হলে তখন তার সামনে থেকে পূর্ব হতে ওৎ পেতে থাকা রানা ও অন্যান্য আসামীর সহ-যোগীতায় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে জোর করে অপহরন করে নিয়ে যায়।

পরে, তারাবানুর ডাক চিৎকারে নুপুরের মাসহ অন্যান্য লোকজন এগিয়ে আসলে বিষয়টি অবগত হলে নুপুরের যে কোন ক্ষতি সাধন হতে পারে বিধায় গত ২৬ নভেম্বর কালিহাতী থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন। ডায়েরি নং- ১৪৯৫।

পরে বিচারের আশায় নুপুর আক্তারের মা শাহিনুর আক্তার বাদী হয়ে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে ৯ জনকে আসামী করে ২০০০ সনের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের (সংশোধনী/০৩) এর ৭/৩০ ধারায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ।

এ ব্যাপারে বাদী নুপুরের মা শাহিনুর আক্তার মেয়ের অপহরনকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও অনতিবিলম্বে প্রশাসনের নিকট মেয়েকে উদ্ধারের দাবী জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই নুপুর আক্তার(১৮) নিখোঁজ হয়েছিল। এ ঘটনায় বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশের কয়েক দিন পর নুপুর আক্তার কালিহাতী থানায় এসে আচমকা হাজির হলে পুলিশ নুপুরের পরিবারের নিকট নুপুরকে হস্তান্তর করে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন