শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৬:২০:৩৭ এএম

দিল্লির দূষণে ভারত-শ্রীলঙ্কা টেস্টে ‘অক্সিজেন ব্রেক’

আন্তর্জাতিক | রবিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০৪:১৬:৩৩ পিএম

ভারতের রাজধানী দিল্লির বায়ুদূষণ সীমার বাইরে পৌঁছে গেছে। বায়ুমান যেখানে তিনশর বেশি হলেই ঘর থেকেই বের হওয়া নিষেধ সেখানে দিল্লির বায়ুমান ৪০০-৪২০-এর মধ্যে ওঠানামা করছে। আর এই বায়ুদূষণের প্রভাব পড়েছে দিল্লিতে হচ্ছে ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার তৃতীয় টেস্টও।

দিল্লির দূষণে সাময়িকভাবে বন্ধ থাকে কোটলা টেস্ট। অস্বাস্থ্যকর ধোঁয়াশায় শ্রীলঙ্কান বোলাররা অসুস্থ হয়ে পড়ায় খেলা চালিয়ে যাওয়া নিয়ে আপত্তি জানান অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল।

ইনিংসের ১২৩তম ওভারে গামাগে শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক কথা বলেন ফিল্ড আম্পায়ার নাইজেল লং ও জোয়েল উইলসনের সঙ্গে। আম্পায়ারদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনাতেও সমাধানসূত্র না পাওয়ায় ম্যাচ রেফারি ডেভিড বুন ডাক্তারদের পরামর্শ নেন। ডাক্তাররা আশ্বস্ত করার পরেই খেলা শুরুর নির্দেশ দেন তিনি। অনিচ্ছা সত্ত্বেও খেলা চালিয়ে যেতে বাধ্য হন চান্দিমাল।

নতুন করে খেলা শুরু হতে লেগে যায় মিনিট পনেরো সময়। ধারাভাষ্যকাররা বায়ু দূষেণর জন্য এই বিরতিকে ‘অক্সিজেন ব্রেক’ নাম দেন।

বিরতির পর খেলা শুরু হলে গামাগে প্রথম বলেই তুলে নেন রবিচন্দ্রন অশ্বিনের উইকেট। তবে পরের ওভারে বল করতে এসে পুনরায় শ্বাসকষ্ট অনুভব করেন তিনি। তড়িঘড়ি তাঁকে সাজঘরে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে, শ্রীলঙ্কার বেশিরভাগ ক্রিকেটারই সকাল থেকে মাস্ক লাগিয়ে মাঠে নামেন। তবে মাঠে ডাক্তার ও ফিজিওর যাওয়া-আসা লেগেই ছিল। ১২৭ তম ওভারে লাকমল মাঠ ছাড়েন একই কারণে। শ্রীলঙ্কার টিম ম্যানেজার মাঠে এসে আম্পায়ারদের সঙ্গে কথা বলেন এবং খেলা বন্ধ করার দাবি জানান। মাঠে নামেন ভারতীয় কোচ রবি শাস্ত্রীও।
এদিকে, ম্যাচ শুরুর আগে ধারাভাষ্যকার রাসেল আরনল্ড, সঞ্জয় মাঞ্জেকাররা বলেন, এই কন্ডিশনে খেলা খুব কঠিন। বিশেষ করে পেসারদের জন্য এই কন্ডিশন মোটেও উপযুক্ত নয়।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন