মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৭:৩৫:৪৯ পিএম

উ. কোরিয়ার ওপর মার্কিন হামলার পরিণতি হবে ভয়াবহ: পুতিন

আন্তর্জাতিক | শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০৩:০০:০৬ পিএম

উত্তর কোরিয়ার ওপর সাম্ভাব্য মার্কিন হামলার পরিণতি ভয়াবহ হবে বলে ওয়াশিংটনকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বৃহস্পতিবার বার্ষিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

পুতিন বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকার চলমান সংকট নিরসনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনে তিনি সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রয়েছেন। তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্রের অধিকারী হোক মস্কো তা সমর্থন করে না। কিন্তু আমেরিকার অতীত কিছু কর্মকাণ্ড পিয়ংইয়ংকে ২০০৫ সালের চুক্তি লঙ্ঘন করে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে উৎসাহিত করেছে। উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচির রাশ টেনে ধরার জন্য রাশিয়া, চীন, আমেরিকা, উত্তর কোরিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের মধ্যে ওই চুক্তি হয়।

চলমান পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য প্রেসিডেন্ট পুতিন আমেরিকাকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, ২০০৫ সালে চুক্তির কয়েক মাস পরই আমেরিকা উস্কানিমূলক তৎপরতা শুরু করে। অথচ বেইজিংয়ে চুক্তির সময় আমেরিকা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল যে, তারা কোরিয় উপদ্বীপে পরমাণু অস্ত্র মোতায়েন করবে না এবং পিয়ংইয়ংয়ের ওপর হামলার কোনো ইচ্ছা তাদের নেই। এ আশ্বাসের ভিত্তিতে উত্তর কোরিয়ার তখনকার নেতা কিম জং ইল পরমাণু কর্মসূচি স্থগিত রাখেন। এর কিছুদিন পর মার্কিন সরকার মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগে উত্তর কোরিয়ার এক কোটি ৪০ লাখ ডলার আটক করে। পুতিন জিজ্ঞাসা করেন, “কী প্রয়োজন ছিল এসব করার?” মার্কিন পদক্ষেপের কারণে উত্তর কোরিয়া মনে করেছে, পরমাণু বোমাই কেবল তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারে এবং পিয়ংইয়ং সে পথ বেছে নিয়েছে।

পুতিন বলেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি তার বাহিনীকে উত্তর কোরিয়ার ওপর আগে ভাগে হামলা নির্দেশ দেন তাহলে মার্কিন সেনারা সব লক্ষ্যবস্তুর ওপর হামলা করতে সক্ষম হবে না এবং তার পরিণতি হবে ভয়াবহ। রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমরা বিশ্বাস করি দু পক্ষের এখন এই শোচনীয় পরিস্থিতিতে শান্ত হওয়া উচিত।”

সামরিক বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, মার্কিন হামলায় যদি কিম জং উন নিহত হন এবং উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র ধ্বংস করা সম্ভব হয় তাহলেও লাখ লাখ লোকের প্রাণহানি ঘটবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন