সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ ১২:০৩:৩৭ পিএম

অস্তিত্বহীন খাল রক্ষার দায়িত্ব ওয়াসার: নৌমন্ত্রী

রাজনীতি | বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০৪:২৫:৪২ পিএম

রাজধানীর অস্তিত্বহীন খাল রক্ষার দায়িত্ব ওয়াসার বলে জানিয়েছেন_ নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান। তিনি বলেন, বুড়িগঙ্গার ৩০ শতাংশ দূষিত হতো হাজারিবাগের ট্যানারির কারণে। আমি এ পর্যন্ত ঢাকার ৩০০ জমি উদ্ধার করেছি। ঢাকার ৫৬টি খাল আছে, সেগুলোর অধিকাংশেরই অস্তিত্ব নেই। এ খাল রক্ষার দায়িত্ব ওয়াসার। সরকারের একজন মন্ত্রী হিসেবে এটা আমার দায়িত্ব, এটা আমি করবো।

২০ ডিসেম্বর বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘বুড়িগঙ্গা ও ধলেশ্বরী নদী রক্ষায় করণীয়‘ শীর্ষক আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শাজাহান খান বলেন, বুড়িগঙ্গায় অামি যাওয়ার আগে কোনো এমপি, মন্ত্রী বা অন্য কেউ এ ব্যাপারে কোনো খোঁজ নেননি। ট্যানারি মালিকরা কোনভাবেই হাজারীবাগ থেকে যেতে চাননি। তাদের যাওয়ার মানসিকতাও ছিল না। ট্যানারি মালিকদের ২৫০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিয়েছে সরকার। এ টাকার মালিক তো জনগণ।

তিনি সদরঘাটের লঞ্চ টার্মিনালের কথা উল্লেখ করে বলেন, আগে ওই জায়গায় মানুষ রীতিমতো নির্যাতনের শিকার হতো। এক সময় ওই জায়গায় পকেট মারের আস্তানা ছিল। ওই জায়গা পরিষ্কারের সময় আমাকে বিব্রত হতে হয়েছে। ২০১০ সালে ১ জুলাই ইজারাদারদের ব্যবসা বন্ধ করে দিই। শ্রম যার মজুরি তার। ওই জায়গায় হকার মুক্ত করতে আমাকে মাঝ মাঝে হানা দিতেও হয়েছে।

এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন_ বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সভাপতি সৈয়দ আবুল মকসুদ, সাধারণ সম্পাদক ডা. আব্দুল মতিন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরীফ জামিল প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে ৯০ শতাংশ ট্যানারি হাজারিবাগের ২৫ হেক্টর জমির ওপর গড়ে উঠেছিল। ট্যানারি গড়ে ওঠে ২৩০টির বেশি। এখনও পরিবেশ ক্ষতি করে ট্যানারি চালু আছে। হাজারিবাগের অনেক ট্যানারি এখন বাসা-বাড়ি থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে চলছে। তাই বুড়িগঙ্গা দূষণ এখনো চলমান।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন