মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ০১:১১:৩৫ এএম

ওই নৌকায় ভোট দে, ভোটারদের পুলিশ

জেলার খবর | মেীলভীবাজার | বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭ | ১১:৩৫:৫৯ পিএম

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা। মৌলভীবাজার জেলার জুড়ীর রাজকী চা বাগান হাসপাতাল কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা ভোটারদের খুব তাড়া দিচ্ছেন এক পুলিশ কনস্ট্রেবল। তার এ তোড়জোড় দেখে বিষয়টি লক্ষ করেন কেন্দ্র পরিদর্শে যাওয়া এক সাংবাদিক।

শ্রীমঙ্গল থানায় কর্মরত চং মিং নামের এক পুলিশ সদস্য ভোটারদের প্রকাশ্য বলছেন, ‘ওই নৌকায় ভোট দে’। শুধু তাই নয় ওই কেন্দ্র গোপন কক্ষের বাইরে প্রকাশ্য ভোট প্রদান চলছিল।

প্রিসাইডিং অফিসারের দায়িত্বে থাকা জুড়ী উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা আবু ইউছুফের নজরে আনলে গোপন কক্ষের বাইরে ভোট গ্রহণ বন্ধ করেন।

ক্যাপশন: গোপন কক্ষের বাইরে চলছে ব্যালেটে পেপারে সিল দেওয়া

জাতীয় দৈনিকের ওই সাংবাদিক বলেন, রাজকী চা বাগান হাসপাতাল কেন্দ্রে গোপন কক্ষের বাইরে ভোট দেওয়া হচ্ছিল। এমনকি পুলিশ সদস্য নৌকায় ভোট দিতে সবাইকে বলছিলেন। নৌকা প্রতীকে ফুলতলা ইউনিয়নে লড়ছেন উপজেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুক আহমদ।

এ বিষয়ে এডিশনাল এসপি আবু ইউছুফ বলেন, প্রশ্নই আসে না। এসপি স্যারসহ আদাঘণ্টা আগে সে সেন্টার থেকে এসেছি। আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছি রাজকী সেন্টারকে। আমরা অতিতেও নিরপেক্ষ ছিলাম এখন আছি।

এদিকে গেল ইউপি নিবার্চনে স্বচ্ছ এবং নিরপেক্ষ অবস্থান ছিল মৌলভীবাজার জেলা পুলিশের। এ জন্য সর্বমহলে বেশ প্রশংসিত হন পুলিশ সুপার শাহ জালাল। জুড়ী নিবার্চনেও প্রশাসন নিরপেক্ষতার কথা প্রার্থীদের মুখে শোনা গেছে শুরু থেকেই। তবে এক অতি উৎসাহী পুলিশ কনস্ট্রেবলের এমন মনগড়া অবস্থান জেলা পুলিশের হানিকর বলে অনেকে মনে করেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সংগঠনের উপজেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুক আহমদ, আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ফয়াজ আলী, বিএনপির বাবুল আহমদ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল আলিম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।


-সূত্র: পূর্বপশ্চিমবিডি


খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন