মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৯:৫৫:৫৫ এএম

কেরানীগঞ্জে স্বর্ণালঙ্কার লুটের ঘটনায় ৭ ডাকাত গ্রেপ্তার

জেলার খবর | ঢাকা | শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০৭:৩৯:৫৬ পিএম

কেরানীগঞ্জের জয়নগর এলাকায় একটি বাড়িতে স্বর্ণালঙ্কার লুটের ঘটনায় সাত ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

গ্রেফতাররা হচ্ছেন- দলনেতা মাস্টার কামাল ওরফে মাইক কামাল (৪০), রুবেল (২৮), রাসেল (২৬), নিজাম ওরফে মিজান (৩২), দেলোয়ার হোসেন দিলু ওরফে সুমন (২৮), ও সোহরাব।

এছাড়াও লুট করা স্বর্ণালঙ্কার কেনার অভিযোগে মিন্টু মণ্ডল নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।

ডাকাতদের কাছ থেকে বোমা তৈরির কিছু সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। গ্রেফতারদের মধ্যে ডাকাত সোহরাব ও ক্রেতা মিন্টু মণ্ডল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

শনিবার দুপুরে ঢাকা জেলা (দক্ষিণ) কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাইদুর রহমান এসব তথ্য জানান।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ডিবি’র ওসি মোহাম্মদ শাহজামান, পরিদর্শক নাজমুল হাসান ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোস্তাফিজুর রহমান।

গত ১১ ডিসেম্বর গভীর রাতে জয়নগর এলাকার ফারুক হোসেনের বাড়িতে ঢুকে সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ দেড় লাখ টাকা ও ৮০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করে একদল ডাকাত।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি’র এসআই মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ডাকাতির ঘটনায় বাড়ির গৃহকর্ত্রী (ফারুক হোসেনের স্ত্রী) শাম্মী আক্তার বাদী হয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

প্রথমে মামলাটির তদন্ত করেন মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহরাওয়ার্দী হোসেন। পরে মামলাটি ডিবি পুলিশে ন্যস্ত হলে তিনি তদন্তের ভার পান।

মোস্তাফিজুর রহমান আরো জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারেন, লুণ্ঠিত স্বর্ণালঙ্কার মিন্টু মণ্ডল নামে একজনের কাছে বিক্রি করা হয়েছে। মিন্টুকে আটকের পর তার দেওয়া তথ্যানুযায়ী, ডাকাত সোহরাবকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সোহরাবের তথ্যানুযায়ী, দলনেতা কামালসহ অন্যদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে লুণ্ঠিত স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা এখনো উদ্ধার করা যায়নি।

লুণ্ঠিত স্বর্ণালঙ্কার মিন্টু মণ্ডল কেনার পর অন্য আরেকজনের কাছে সেগুলি বিক্রি করে দেন। বর্তমানে তাকে খোঁজা হচ্ছে। শেষ ক্রেতাকে পাওয়া গেলে স্বর্ণালঙ্কারও পাওয়া যাবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন