মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৮ ০৮:১৮:৫৫ এএম

কর্মরত বাংলাদেশিদের দারুন সুখবর দিল দুবাই সরকার

প্রবাস | বুধবার, ১০ জানুয়ারী ২০১৮ | ১০:০২:৫৩ পিএম

আরব আমিরাতের বিভিন্ন শহরে কর্মরত রয়েছেন প্রায় ৭ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি। তারা বৈধ পথে আমিরাতে গেলেও তাদের অনেকের মালিক পক্ষের সঙ্গে সমঝোতা না থাকা, সঠিক সময়ে বেতন না পাওয়া বা অন্য কোনো কারণে ভিসা নবায়ন হয় না। নথিপত্রহীন এই শ্রমিকরা চাইলেই আউট পাস পদ্ধতি গ্রহণ করে দেশে ফিরতে পারবেন।

আউট পাস সম্পর্কে দুবাই ও উত্তর আমিরাত বাংলাদেশ কনস্যুলেটের প্রথম সচিব (শ্রম) একেএম মিজানুর রহমান জানান, ‘দীর্ঘ দিন ধরে ভিসার মেয়াদ না থাকা বা কর্মস্থল থেকে পালিয়ে অন্যত্র কাজ করা শ্রমিকরা চাইলে এই সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন। আবুধাবীস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস এবং দুবাই ও উত্তর আমিরাতের বাংলাদেশ কনস্যুলেটে ভিসা বা পাসপোর্টের কপির সঙ্গে দুই কপি ছবি নিয়ে যোগাযোগ করলে আউট পাস পেপার প্রদান করা হবে। এতে খরচ হবে মাত্র ৬০ দিরহাম।’

তিনি আরও জানান, ‘আউট পাস পেপার নিয়ে স্থানীয় ইমিগ্রেশন থেকে এক্সিট পাস পেপার বা ট্রাভেল পাস পেপার সংগ্রহ করতে হবে। তবে এক্ষেত্রে যার যেখানে ভিসা ইস্যু হয়েছিল ঠিক ওই শহরের ইমিগ্রেশনে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে তাদের। যেমন- কারো ভিসা যদি আবুধাবী শহরের হয়ে থাকে তিনি দুবাই কনস্যুলেট হতে আউট পাস নিলে আবুধাবী ইমেগ্রেশনে গিয়ে এক্সিট পাস সংগ্রহ করতে হবে। এক্সিট পাস সংগ্রহে খরচ হতে পারে ২০০ থেকে ৩০০ দিরহাম।’

এছাড়া কোনো প্রবাসী গুরুতর অসুস্থ বা চিকিৎসাধীন অবস্থায় যোগাযোগ করলে দূতাবাস ও কনস্যুলেট থেকে প্রতিনিধি পাঠিয়ে ওই প্রবাসীদের আউট পাসের ব্যবস্থা করা হয় বলেও জানান একেএম মিজানুর রহমান।

আরব আমিরাতের বিজ্ঞ প্রবাসীরা জানান, অবৈধভাবে আমিরাতে থাকলে প্রতিনিয়ত দেশটির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে আটক হওয়ার ভয়-ভীতি থাকে। শুধু তাই নয়, আটক হলে সাজাও ভোগ করতে হয় যথাযথ। আটক হওয়া অভিবাসীদের প্রথমে কোর্টে পাঠানো হয়; এরপর দেয়া হয় বিভিন্ন মেয়াদে সাজা। ফলে ভয় সংশয় নিয়ে দিন যাপন করার চেয়ে আউট পাস নিয়ে দেশে ফেরা অধিকতর উত্তম। এতে অন্তত জেল-জরিমানা থেকে পাওয়া যাবে মুক্তি।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন