মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ ১০:৩৭:২২ পিএম

মুমিনুলের ৫০০০ রান

খেলাধুলা | বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০১৮ | ০৯:২৭:০৫ এএম

ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে দলে নেই। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে খেলবেন মুমিনুল হক সৌরভ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। টেস্টে মাঠে নামার আগে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটে আরো একবার নিজেকে প্রমাণ করলেন মুমিনুল হক। বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগে (বিসিএল) ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকালেন এ টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান। এতে তিনি স্পর্শ করলেন গর্বের ল্যান্ডমার্কও। প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চলের বিপক্ষে আগের দিন ১৬৯ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

আর গতকাল শেষ পর্যন্ত থামেন ব্যক্তিগত ২৫৮ রানে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটি তার দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরিই নয় ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংসও। এর আগে তার সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল ২৩৯ রানের। এখন পর্যন্ত ৭৪ ম্যাচ খেলে সেঞ্চুরি ১১ ও ফিফটি ২৮টি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে পাঁচ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মুমিনুল হক। ঘরোয়া ক্রিকেটে তুষার ইমরানের রান প্রায় ১০ হাজার ছুঁই ছুঁই। পাঁচ হাজারি ক্লাবের সদস্য সংখ্যাও কম নয়। কিন্তু দেশের টেস্ট ক্রিকেটের স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যানের এ মাইলফক অবশ্য অন্য গুরুত্ব বহন করে।

এদিন ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান জাকির হাসানও। তার ব্যাট থেকে আসে ১১৯ রান।

এ দু’জনের ব্যাটে চড়ে ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের প্রথম ইনিংসের সংগ্রহ পৌঁছে ৫৪৬ রান। তবে বল হাতে ৬ উইকেট নেন জাতীয় দল থেকে বাদ পড়া স্পিনার আবদুর রাজ্জাক। জবাবে প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চলের শুরুটা ভালো ছিল না। ১২৮/৩ সংগ্রহ নিযে ম্যাচের দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করে তারা। দিন শেষে তারা পিছিয়ে ছিল ৪১৮ রানে।

গতকাল দিনের প্রথম পানি বিরতির পর পরই ডাবল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মুমিনুল। ২৫৫ বলে ডাবল সেঞ্চুরি পূর্ণ হয় তার। শেষ পর্যন্ত ৩৪৪ বলের ইনিংসে মুমিনুল হাঁকান ২৩ চার ও ৩টি ছক্কা। দেশের হয়ে ২৫ টেস্ট খেলা মুমিনুল হাঁকিয়েছেন ৪টি সেঞ্চুরি। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৮১। আগের দিন ৪৭ রানে অপরাজিত থাকা জাকির গতকাল থামেন ১১৯ রানে। মুমিনুল-জাকিরের ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে যোগ হয় ২৩৩ রান। দক্ষিণাঞ্চলের বল হাতে ৪১ ওভারের স্পেলে ১৭৮ রানে ৬ উইকেট নেন আবদুর রাজ্জাক। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটি রাজ্জাকের ৩০তম ৫ উইকেট শিকার। ১১১ ম্যাচে তার শিকার ৪৯৬ উইকেট। গতকাল তার শিকারের মধ্যে মুমিনুল-জাকিরের উইকেট অন্যতম। এছাড়া সাকলায়ের সজীব নেন ৩ উইকেট।

দিনের শেষভাগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪৩ রানের ওপেনিং জুটিতে জবাব দিচ্ছিল দক্ষিণাঞ্চল। কিন্তু শাহরিয়ার নাফীসকে রেখে সৌম্য সরকার ১৯ রানে ফিরে গেলে ভাঙে জুটি। সোহাগ গাজীর বলে এলবিডব্লিউ হন বাঁ-হাতি এ ওপেনার। ২ চারে ৩২ বলে ১৯ রান করেন ধারাবাহিকতার অভাবে জাতীয় দল থেকে ছিটকে যাওয়া সৌম্য। নাফীস ২৯, আর মেহেদী হাসান সাজঘরে ফেরেন ব্যক্তিগত ৯ রানে। জাতীয় দলের বাইরে থাকা মোসাদ্দেক হোসেন ৪২ ও অভিজ্ঞ তুষার ইমরান ২২ রানে অপরাজিত থাকেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

টস: ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চল, ব্যাটিং

পূর্বাঞ্চল প্রথম ইনিংস: ৫৪৬ (মুমিনুল ২৫৮, জাকির ১১৯, রাজ্জাক ৬/১৭৩, সাকলাইন সজীব ৩/৯২)।

প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চল: ৩/১২৮ ব্যাটিং (মোসাদ্দেক ৪২*, নাফীস ২৯, সোহাগ গাজী ২/৩৯, নাজমুল অপু ১/২১)

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন