শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮ ০৮:০৪:৩৩ এএম

টাইগারদের ড্রেসিংরুম ভোলেননি স্ট্রিক

খেলাধুলা | শনিবার, ১৩ জানুয়ারী ২০১৮ | ১১:০৮:৫৭ পিএম

মিরপুরে এসে একাডেমি মাঠে ব্যাগ রেখেই চলে গেলেন শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের সেন্টার উইকেটে। উইকেট কতটা বদলেছে বোঝার চেষ্টা করলেন। এরপরই ছুটলেন মাশরাফীর দিকে। খানিক আগেই ওয়ার্মআপ শেষ করা টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক সাবেক গুরু হিথ স্ট্রিককে পেয়ে মাতলেন দুষ্টুমি, রসিকতায়।

টাইগারদের সঙ্গে দুবছর কাজ করার পর ২০১৬ সালের মাঝামাঝি সময়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমির বোলিং কোচের চাকরি নিয়ে চলে যান স্ট্রিক। পরে পান জিম্বাবুয়ের হেড কোচের দায়িত্ব। ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে টাইগারদের ডেরায় এখন স্ট্রিকের শিষ্যরা।

একাডেমি মাঠে সন্ধ্যা অবধি শিষ্যদের ব্যাটিং-বোলিং করিয়ে স্ট্রিক আবার ছুটলেন স্টেডিয়ামের দিকে। এবার অনুশীলন ফ্লাডলাইটের নিচে। পথে টাইগারদের ড্রেসিংরুম পেরিয়ে যেতে হয় অতিথীদলের ডেসিংরুমে।

স্ট্রিক লাল-সবুজের ড্রেমিংরুমের দিকে তাকাতেই চোখ পড়ে মুশফিকের দিকে। দরজায় হেলান দিয়ে আনমনে দাঁড়িয়ে তখন মুশি। স্ট্রিক থামলেন, ড্রেসিংরুমের সামনে এসে মুশফিককে উদ্দেশ্য করে বললেন, ‘হায় লিটলম্যান’। পরে মোস্তাফিজের সঙ্গে করলেন করমর্দন। স্ট্রিকের সময়ই বাংলাদেশ দলে কাটার মাস্টারের উত্থান। গুরুর সঙ্গে হ্যালো-পর্ব সেরে ফিজ ঢুকে গেলেন ড্রেসিংরুমে। পরে স্ট্রিকের সঙ্গে আলাপটা দীর্ঘ হল কয়েক সপ্তাহ আগে টেস্ট অধিনায়কত্ব হারানো মুশফিকের।

কি আলাপ হয়েছে সেটা অবশ্য জানা গেল না। স্ট্রিক পরে ড্রেসিংরুমের ভেতরে সময় কাটালেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গেও। এখানে বসেই দীর্ঘ সময় মাশরাফী-মোস্তাফিজদের নিয়ে প্রতিপক্ষকে নাজেহাল করার বোলিং পরিকল্পনা এঁটেছেন জিম্বাবুইয়ানদের সাবেক অধিনায়ক। দেড় বছরের ব্যবধানেই কী ভোলা যায় সেই স্মৃতি! স্ট্রিক ভোলেননি কিছুই। তাই নিজ দেশের বাইরে এদেশকেও ঘর বলতে দ্বিধা করলেন না।

‘এটা অনেকটা বাড়ির বাইরে নিজের আরেক বাড়িতে আসার মতই। খুবই ভাল লাগছে। খুব বেশি দিন হয়নি, আমি এখানে দুই বছর কাটিয়ে গেছি। যা হোক, ভাল একটি ত্রিদেশীয় সিরিজের আশা করছি।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন