শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯ ০৫:৪২:০৮ এএম

নলডাঙ্গা বাজারের সরকারী জায়গা কবির চেয়ারম্যানের কব্জায় !

আতিকুর রহমান | জেলার খবর | ঝিনাইদহ | সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০১৮ | ০২:২৩:১০ পিএম

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নলডাঙ্গা বাজারের পূর্ব পাশ্বে ৫৪ শতক সরকারী জমি দখল হয়ে গেছে। বাজারে মার্কেট তুলে নলডাঙ্গা গ্রামের রমজান আলী, আব্দুল মোমিন, মাহাতাব ও রেজাউল ইসলাম ২৮ শতক জমি বেদখলের পর এবার নলডাঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কবির হোসেন বাকী জমি দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

তিনি আওয়ামীলীগের দলীয় অফিস বানানোর নাম করে অর্ধ কোটি টাকার সরকারী জমি হাতিয়ে নিতে চাচ্ছেন। অথচ গনব্যবহার্য্য সরকারী এই ৫৪ শতক জমি উদ্ধারের কোন পদক্ষেপ নেই। এ বিষয়ে শেখ ওলিয়ার রহমান নামে এক ব্যক্তি ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগ পেয়ে রোববার বিকালে ইউএনও শাম্মি আক্তার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। ইতিমধ্যে জায়গাটি দখল করতে ইট ফেলে কাজ শুরু করেছেন চেয়ারম্যান কবির ও আওয়ামীলীগ নেতা ইরফান বিশ্বাস। অভিযোগ উঠেছে নলডাঙ্গা ইউ.পি চেয়ারম্যান কবির হোসেন রাস্তার ধারে গর্ত ভরাট করে ধান হাটা প্রশস্ত করার উদ্যোগ নিলে সর্বমহলে প্রশংসিত হয়।

তারপর দেখা যায় বাজারের পুর্ব দিকের ফাঁকা স্থানটি তিনি নিজেই দখল করে নিচ্ছেন। এ নিয়ে চেয়ারম্যানের আসল উদ্দেশ্য বেরিয়ে পড়ে। কোন আইনের তোয়াক্কা না করে ১৩৮ নং নলডাঙ্গা মৌজার ৩৩৭ দাগের জমির উপর স্থাপনা নির্মান করা হচ্ছে। এতে করে নলডাঙ্গা ইউনিয়ন সহ পাশ্ববর্তী ইউনিয়নগুলোর মানুষের মধ্যে জমি দখলের মিশ্র পতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

এর আগে পরিত্যক্ত এই জমিকে ঘিরে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাম্মি আক্তার ও নলডাঙ্গা ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ মতিয়ার রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করার কথা স্বীকার করেন। ইউ.এন.ও বলেন এটি রাস্থা শ্রেণীর গনব্যবহার্য জমি।

সেখানে কোন স্থাপনা তৈরির বিধান নেই। যে কারনে আমি কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়ে এসেছি। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন