শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯ ০৯:২৪:৪৩ এএম

প্রেমিকের কথায় স্বামীকে ছেড়ে দ্বিতীয় স্বামীর কাছে প্রতারিত হলো নারী!

জেলার খবর | গোপালগঞ্জ | বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ | ০৩:১০:২৩ পিএম

ছবি: সংগৃহীত

সিতাইকুন্ড গ্রামের আকবর আলী শেখের ছেলে আরমান শেখের (২৫) সঙ্গে মান্দ্রা গ্রামের সিদ্দিক তালুকদারের মেয়ে কাকলী খানমের (১৯) দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর চার মাস আগে সিদ্দিক তালুকদার কাকলীকে জোর করে পার্শ্ববর্তী আশুতিয়া গ্রামে বিয়ে দিয়ে দেন। বিয়ের দুদিন পর প্রেমিক আরমানের কথায় কাকলী স্বামীর ঘর ছেড়ে আরমানের হাত ধরে ঢাকায় পালিয়ে যায়। ঢাকা পালিয়ে থাকা অবস্থায় আরমানের কথায় কাকলী স্বামীকে তালাক দেয়।

এভাবে কিছু দিন যাওয়ার পর কাকলী বিয়ের জন্য আরমানকে চাপ দিলে ১৮ ডিসেম্বর আরমান কাকলীকে বিয়ে করে। বিয়ের কিছু দিন পর আরমান কাকলীকে তার ভাইয়ের বাসায় রেখে এসে কাকলীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এরপর কাকলী বিভিন্নভাবে আরমানের সঙ্গে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হয়ে আরমানদের বাড়িতে এসে ওঠে।

এবং বর্তমানে স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে আরমানের বাড়িতে দুদিন ধরে অনশন পালন করছে কাকলী। ঘটনাটি ঘটেছে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার সিতাইকুন্ড গ্রামে।

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) সরেজমিনে সিতাইকুন্ড গ্রামে গিয়ে আরমানের ঘরের সামনে কাকলীকে বসে থাকতে দেখা যায়। কাকলী বলেন, আমার এভাবে চলে আসা ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। আমাকে এ বাড়িতে দেখে আরমান আমাকে কিছু না বলে পালিয়ে গেছে। ও যদি আমাকে স্ত্রীর স্বীকৃতি না দেয় তাহলে আমি আত্মহত্যা করব।

এ ব্যাপারে আরমানের বাবা আকবর আলী শেখ বলেন, ওদের বিয়ের বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই। আমরা আরমানের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। কিন্তু তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাচ্ছি। আরমানের সঙ্গে যোগাযোগ না করা পর্যন্ত আমরা কাকলীর ব্যাপারে কোনো সিন্ধান্ত নিতে পারব না। আরমান কি বলে তা শুনার পর আমরা ব্যবস্থা নিব।
-বিডি২৪লাইভ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন