শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ ০৩:২৮:৫০ পিএম

ভক্তকে সেলফি তুলা শেখালেন মোদি

খেলাধুলা | শনিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০১৮ | ০৪:৫৫:৩৪ পিএম

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে রাষ্ট্রপতি ভবনের অনুষ্ঠান ‘অ্যাট হোম’। রয়েছেন রাষ্ট্রপতি, উপ-রাষ্ট্রপতি, ১০টি আসিয়ান দেশের রাষ্ট্রপ্রধান, রাহুল গান্ধী, মনমোহন সিংহ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এসেই সকলকে নমস্কার করলেন। তবে থমকে দাঁড়ালেন ‘অ্যাম্বুলেন্স দাদা’কে দেখে। গত বছর জলপাইগুড়ির এই অচেনা করিমুল হককেই পদ্মশ্রী দিয়ে দেশে বিখ্যাত করেছিলেন মোদি। আজ তাকে দেখেই প্রশ্ন করলেন, ‘কী খবর? আপনার ওখানে একটি সেতু তৈরির কথা ছিল, হয়েছে?’

ভিড়ের মধ্যে তাকে দেখে মোদি যে দাঁড়িয়ে গপ্পো জুড়বেন, ভাবতেও পারেননি করিমুল। পাকা রাস্তা নেই, যানবাহন চলারও প্রশ্ন নেই। অসুস্থ মাকে পাঁজাকোলা করে দৌড়চ্ছিলেন হাসপাতালে। তবু বাঁচাতে পারেননি। জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয় সে ঘটনা। তারপর নিজের বাইককেই বানিয়েছেন অ্যাম্বুলেন্স। এলাকায় খ্যাত ‘অ্যাম্বুলেন্স দাদা’ নামেই।

সরকারের মন্ত্রী সুরিন্দর সিংহ অহলুওয়ালিকেও মোদি পাঠিয়েছিলেন বাড়িতে। করিমুল চেয়েছিলেন, মালবাজার যাওয়ার জন্য সেতু হলে জঙ্গল পেরোতে হয় না। যাতায়াতে অনেকটা সুবিধে হয়। শুক্রবার রাষ্ট্রপতি ভবনে তাকে দেখে সে কথাই জিজ্ঞাসা করলেন প্রধানমন্ত্রী।

করিমুল বললেন, ‘কিছুই হয়নি।’ মোদিরর আশ্বাস, ‘শিগগিরই হয়ে যাবে।’ এর পরই আমতা আমতা করে করিমুল আবদার করে বসলেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একটি নিজস্বীর (সেলফি)। কিন্তু মোবাইলে ঠিক মতো ছবিও তুলতে পারেন না। বুঝতে পেরেই সঙ্গে সঙ্গে ফোনটি করিমুলের কাছ থেকে নিয়ে নিলেন প্রধানমন্ত্রী। নিজেই করিমুলের সঙ্গে নিজস্বী তুললেন। রাষ্ট্রপতি ভবনে তারকা সমাবেশে রাহুল গান্ধীর সঙ্গেও আলাপটা সেরে ফেলেন করিমুল। নিজের পরিচয় দেন, তার সঙ্গেও ছবি তোলেন।

করিমুলকে নিয়ে রুপালি পর্দায় একটি ছবিও তৈরি হতে চলেছে। করিমুল নিজেই জানালেন, পরিচালক তার ভূমিকায় অভিনেতা বাছাইয়ের কাজও প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলেছেন। সামনের মাসেই শুরু হবে শ্যুটিং। তার গ্রামেও বসবে সিনেমার সেট।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন