সোমবার, ২৮ মে ২০১৮ ০৫:৩৩:৫০ এএম

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিজিওথেরাপি বিভাগের আন্দোলন

শিক্ষাঙ্গন | রবিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০১৮ | ০৭:৩৬:৩৬ পিএম

সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার আন্দোলনে নেমেছে ফিজিওথেরাপি বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

রোববার (২৮ জানুয়ারী) সকাল থেকে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলনে সামিল হয়েছে ফিজিওথেরাপি বিভাগের দুই শতাধিক শিক্ষার্থী।

পরীক্ষার ফল দিতে বিলম্ব করা আন্দোলনের প্রধান কারণ হলেও তাদের মোট ১১ দফা দাবি আছে। ফলাফলে তথ্য বিভ্রাট এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিস ও বিভাগীয় অফিসে ফলাফলের অসামঞ্জস্যতা ছাত্রদের হয়রানি বাড়াচ্ছে।

শিক্ষার্থীদের দাবী, বিভাগীয় প্রধানের অনুপস্থিতিতে ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধানের কাছ থেকে কোন সমস্যার সমাধান পাচ্ছে না তারা। দুই বছর ধরে শিক্ষার্থীরা ল্যাব প্র্যাক্টিস করার সুযোগ পাচ্ছেনা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান সহ অন্য শিক্ষকেরা তাদের পরীক্ষায় পাশ করাবেনা বলে বারবার হুমকি দিচ্ছে; যাতে তারা আন্দোলন থেকে সরে আসে।

শিক্ষকেরা শিক্ষার্থীদের সাথে কোনো ধরনের খোলাখুলি আলোচনায় বসতে চাচ্ছেন না। কিন্তু শিক্ষকদের দাবি তারা প্রতি ব্যাচের দুইজন করে শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলতে চেয়েছেন। পাল্টাপাল্টি বক্তব্য আসলেও এখন অবধি কোন সমস্যার সমাধান হয়নি।

ফিজিওথেরাপি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সুলতানা ফারাত জাহান (ভারপ্রাপ্ত) বলেন, অহেতুক আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। ফল প্রকাশে দেরি হলেও সাপ্লিমেন্টারীর ফর্ম নেয়ার সময় বাড়ানো হয়েছে। শিক্ষার্থীদের এ ব্যাপার নিশ্চিত করার পরও তারা ফর্ম নিতে রাজি হচ্ছেনা। শিক্ষার্থীরা সময় মতো পূর্বের সাপ্লিমেন্টারী পরীক্ষায় সঠিক সময়ে অংশগ্রহণ করেনি বিধায় সর্বোপরি ফলাফল তৈরি করতে বেশি সময় লাগছে।

এ ব্যাপারে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মুর্ত্তজা আলী বলেন, আগের দায়িত্বপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের গাফেলতির কারণে ফিজিওথেরাপি বিভাগের পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে বেশ কিছু অভ্যন্তরীণ সমস্যা দেখা দিয়েছে। সে সমস্যা কাটিয়ে উঠে আমরা আরো দ্রুত ফলাফল প্রকাশ করার চেষ্টা করছি।

কিছুদিন পরপরই এক এক বিভাগের আন্দোলনে বারবার রহিত হচ্ছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক পরিবেশ।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেও ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের অনুমোদনের বিষয় নিয়ে উত্তপ্ত ছিল গণবি ক্যাম্পাস।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন