শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮ ০২:৪৮:৩৬ পিএম

১০ বছরের ছেলেকে নির্মম নির্যাতন বাবার, ভিডিও করলেন মা! (ভিডিও)

আন্তর্জাতিক | সোমবার, ২৯ জানুয়ারী ২০১৮ | ০৩:২৯:২৫ পিএম

ছবি : সংগৃহীত

ছোট বেলায় বিভিন্ন সময় কারণে অকারণে বাচ্চারা মিথ্যা বলে থাকে। এ কারণে বাবা-মা তাদের প্রিয় সন্তান যেন আর মিথ্যা না বলে সেজন্য সচেতন করে, ভবিষ্যতে আর মিথ্যা না বলতে। সচারচ এনমটিই করেন বাবা-মা।

কিন্তু ভারতের বেঙ্গালুরুতে ১০ বছরের এক বাচ্চা ছেলেটির সঙ্গে যা হল, সেটা বলার মতো নয়। এই ঘটনা কোনো দিক থেকেই কোনো কিছুর সঙ্গেই তুলনা করা যায় না। ওই ছেলেটি তার মায়ের সঙ্গে মিথ্যা কথা বলার কারণে অভিযোগ উঠেছে তাকে অমানবিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে। খবর এনডিটিভির।

এই ঘটনাটি প্রায় দুই মাস আগে ঘটেছে। বেশ কিছু দিন ধরেই নাকি ছেলেটির স্বভাব অনেক খারাপ হতে শুরু করেছিল। নানা কারণে বিভিন্ন ছেলেটি প্রায়ই মিথ্যা কথা বলতো তার মায়ের কাছে। বহু বার সচেতন করার পরেও তার স্বভাব না বদলানোয় বাবা-মা মিলে প্রচণ্ড প্রহার করে তাকে।

মায়ের কাছে অনাবরত মিথ্যা কথা বলা শুনে ফেলল তার প্রচণ্ড রাগী বাবা! ব্যস, হয়ে গেল তার পর আর কি করার, যাবে কোথায় ছেলে! মাকে ঘটনাটির ভিডিও করতে বলে ছেলেকে উত্তম-মধ্যম দিতে শুরু করে বাবা! এতে করে যেন পরের বার আর মারতে না হয়, যাতে ভিডিওটা দেখালেই সে যেন আর মিথ্যা কথা বলা থেকে দুরে থাকে।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, একটা মোবাইল ফোনের চার্জার দিয়ে ছেলেটির হাতের পাতায়, গায়ে উন্মত্তের মতো প্রহার করে চলেছে বাবা। চিবুক ধরে তাকে তুলে ধরছে শূন্যে, আছাড়ের পর আছাড় মেরেই চলেছে! এখানেই শেষ নয়। এক সময় শুরু হলো মাটিতে ফেলে লাথি মারার পর্ব।

এ ঘটনায় বেঙ্গালুরু পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাচক্রে দুই মাস আগে তোলা এই ভিডিওটি দেখে ফেলেন এলাকার এক দোকানদার। ছেলেকে নির্যাতনের এই ঘটনা শুধু ভিডিও করেই ক্ষান্ত থাকেননি ছেলেটির বাবা-মা, সেটি আবার আপলোডও করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়াতে। তারপর তিনি ওই ভিডিওটি নিয়ে দ্বারস্থ হন এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার এবং তাদের সহায়তায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই দম্পতির নামে।

বেঙ্গালুরু পুলিশের পশ্চিম বিভাগের ডেপুটি কমিশনার এম এন অনুচৈত বলেন, অভিযোগ পাওয়া মাত্রই পুলিশ ছেলেটির বাবাকে গ্রেফতার করে।

এছাড়া জুভেনাইল জাস্টিস অ্যাক্টের ৮২ নম্বর ধারা অনুযায়ী ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন