সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮ ০৩:১৯:৫৩ পিএম

বেনাপোল স্থলবন্দরে ৫ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

জেলার খবর | যশোর | সোমবার, ২৯ জানুয়ারী ২০১৮ | ০৭:২৪:২৫ পিএম

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে কারপাসসহ কাস্টমস কর্মকর্তাদের হয়রানির প্রতিবাদে পাঁচ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ রয়েছে। ফলে, বেনাপোল ও পেট্রাপোল বন্দরে আটকা পড়েছে শত শত পণ্যবাহী ট্রাক, যার অধিকাংশই বাংলাদেশের রপ্তানিমুখী গার্মেন্টস শিল্পের কাঁচামালসহ পচনশীল পণ্য।

আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকলেও বেনাপোল বন্দরে লোড-আনলোডসহ বন্দর ও কাস্টমসের সকল কার্যক্রম এবং পাসপোর্ট যাত্রীদের পারাপার স্বাভাবিক রয়েছে। ভারতের পেট্রাপোলে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ ও সিঅ্যান্ডএফ অ্যাজেন্টসহ বন্দর ব্যবহারকারীরা তাদের নিজ নিজ সিদ্ধান্তে অটল থাকায় বিষয়টি সুরাহার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

রোববার বিকেলে পেট্রাপোল টার্মিনালের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করে ভারতীয় ট্রাক মালিক, ট্রাক চালক, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন।

ভারতের পেট্রাপোল চেকপোস্ট সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট স্টাফ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী জানান, পেট্রাপোল কাস্টমসের নতুন একজন কাস্টমস সুপারিন্টেড্যান্ট যোগদান করার পর থেকে নানা হয়রানি শুরু করেছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

সর্বশেষ, বাংলাদেশে দ্রুত পণ্য রপ্তানি করার জন্য আগে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের কর্মচারীরা কাস্টমস অফিসারের মাধ্যমে মেনিফেস্ট তৈরি করার পর কারপাস (গেট পাস) ইস্যু করে পণ্য রপ্তানি করতেন। হঠাৎ করে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ এক নির্দেশনা জারি করে যে, তারা নিজেরাই কারপাস ইস্যু করে রপ্তানি পণ্য বাংলাদেশে প্রবেশ করাবেন। এ ধরনের নির্দেশনায় পণ্য রপ্তানিতে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমস কার্গো শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ জানান, ভারতে কারপাস জটিলতাসহ অন্যান্য কারণে বেনাপোল বন্দর দিয়ে গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পাঁচ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ রয়েছে।

বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক (ট্রাফিক) আমিনুল ইসলাম জানান, আমদানি-রপ্তানি সচল হলে গোটা বন্দর এলাকায় পণ্য জটের পাশাপাশি যানজটও প্রকট আকার ধারণ করবে।

তিনি আরো জানান, পেট্রাপোল বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকলেও বেনাপোল বন্দরে পণ্য লোড-আনলোড স্বাভাবিক রয়েছে। পাসপোর্টধারী যাত্রী যাতায়াতও স্বাভাবিক রয়েছে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন