রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১১:২০:০৯ এএম

২১তম রাষ্ট্রপতি চূড়ান্ত হবে আজ

রাজনীতি | বুধবার, ৩১ জানুয়ারী ২০১৮ | ০৩:২১:২৯ পিএম

রাষ্ট্রপতি পদে আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের বৈঠকে বুধবার প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। গণভবনে দলপ্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে রাত ৮টায় বৈঠক শুরু হবে।

জাতীয় সংসদে দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠ আওয়ামী লীগ। ফলে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীই রাষ্ট্রপতি পদে বিজয়ী হবেন। তিনিই হবেন দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি।

আগামী ২৩ এপ্রিল বর্তমান রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হবে। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল তিনি এ পদে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির মেয়াদ অবসানের পূর্ববর্তী নব্বই হতে ষাট দিনের মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করতে হয়। সে হিসেবে আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে।

সংসদে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য সংখ্যা ৩৬। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে দলটির কোনো প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়ার সম্ভাবনা নেই। ফলে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হবেন। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ভোটার সংসদ সদস্যরা। ৩৫০ সদস্যবিশিষ্ট জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ২৩২।

এদিকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। এরইমধ্যে নির্বাচন কমিশন ভোটার তালিকা সংসদ সচিবালয়ে পাঠিয়েছে। গাইবান্ধা-১ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ শূন্য আসন বাদ দিয়ে বাকি ৩৪৮ এমপির নাম রয়েছে ভোটার তালিকায়। সংসদ সদস্য হিসেবে ভোটারের অনুকূলে বিভক্তি সংখ্যা, ভোটারের নাম ও নির্বাচনী এলাকা উল্লেখ রয়েছে তালিকায়।

আগামী ১৮ ফেব্রয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচন হবে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী- মনোনয়নপত্র দাখিলের তারিখ ও সময় ৫ ফেব্রুয়ারি, সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। মনোনয়নপত্র পরীক্ষা ৭ ফেব্রুয়ারি এবং মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৪টা পর্যন্ত। রাষ্ট্রপতি নির্বাচন আইন অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন সংসদ সদস্যদের ভোটে। আর প্রধান নির্বাচন কমিশনার নির্বাচনী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। প্রার্থীর সংখ্যা একজনের বেশি না হলে তাকেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে। আর একাধিক প্রার্থী হলে সংসদের অধিবেশন কক্ষে বিধিমালা অনুযায়ী ভোট হবে। ওই আইনের সপ্তম ধারায় বলা হয়েছে- নির্বাচনী কর্মকর্তা নির্ধারিত দিন, সময় ও স্থানে মনোনয়নপত্র পরীক্ষা করবেন।
একাধিক প্রার্থী হলে ১৮ ফেব্রুয়ারি সংসদের অধিবেশন কক্ষে নির্বাচনী কর্মকর্তা ভোটের আয়োজন করবেন। নির্ধারিত ব্যালট পেপারে পছন্দের প্রার্থীর নাম লিখে নিজের সই দিয়ে তা জমা দেবেন এমপিরা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন