শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮ ১১:৫১:৪১ পিএম

শেরপুরে সদ্যঘোঘিত ছাত্রলীগ কমিটি বিতর্কে পাল্টা-পাল্টি সংবাদ সম্মেলন

জাহিদুল খান সৌরভ | জেলার খবর | শেরপুর | শুক্রবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১০:২৩:০৫ পিএম

গত ২৮-০১-২০১৮ ইং তারিখে শেরপুরে সদ্যঘোঘিত জেলা ছাত্রলীগ কমিটি বিতর্কে পাল্টা-পাল্টি সংবাদ সম্মেলন করছে জেলা আওয়ামী লীগের দু'গ্রুপ। যেখানে শোয়েব হাসান শাকিলকে সভাপতি ও মতিউর রহমান মতিনকে সাধারন সম্পাদক করে শেরপুর জেলা শাখার কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

এ বিষয়ে শুক্রবার ১১টায় জেলা শহরের হোটেল আলীশানে এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ ও সদর আসনের এমপি জনাব আতিউর রহমান আতিক বলেন, উক্ত কমিটি অনুমোদন দেয়ার পর একটি কুচক্রী মহল মতিনের নামে ভুয়া ফেইসবুক আইডি খোলে তার নামে মিথ্যা-বনোয়াট এবং ভিত্তিহীন অপপ্রচার চালাচ্ছে। মতিন কখনও বিএনপি-জামাতের কর্মী ছিল না। তার বাবা শেরপুর শহর আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এবং তার বড় ভাই মোতালেব বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শেরপুর শহর শাখা ১নং ওয়ার্ডের সাবেক সভাপতি।

এছাড়া মতিন গত ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা ও জেলা পরিষদসহ স্থানীয় সকল নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মননীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছে। সদ্যঘোঘিত কমিটিতে মতিনের প্রতি ইর্ষান্বিত হয়ে একটি মহল এরুপ অপপ্রচার-প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনের শেষাংশে জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ ও সদর আসনের এমপি জনাব আতিউর রহমান আতিক, রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদকে দ্বিতীয় মেয়াদে মনোনয়ন দেয়ায় আওয়ামী লীগের সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে ধন্যবাদ জানান।

এসময় অন্যান্যেদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট মজদুল হক মিনু, খন্দকার নজরুল ইসলাম, ফখরুল মজিদ খোকন ও মিনহাজ উদ্দিন মিনাল, সাংগঠনিক সম্পাদক বশিরুল ইসলাম শেলু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব দুলাল উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শামীম হোসেন, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আবুল কাশেম জিপি, সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দত্ত, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

অপরদিকে দুপুর ৩টায় জেলা শহরের খরমপুর গোডাউন মোড়ে, হুইপ আতিউর রহমান আতিক সাহেবের বক্তব্যের উপর পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা আওয়ামীলীগের একাংশ।

সে সময় সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছানুয়ার হোসেন ছানু অভিযোগ তুলে বলেন, সদ্যঘোঘিত জেলা ছাত্রলীগ কমিটি হুইপ মহোদয়ের মনগড়া ও পকেট কমিটি। এ কমিটিতে ত্যাগী-পরিক্ষিত ছাত্রলীগ নেতাদের মূল্যায়ন করা হয় নি।

সদ্যঘোঘিত কমিটির সাধারন সম্পাদক মতিনের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তার পরিবারকে হেয় ও বাজে মন্তব্য করে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেম ফেইসবুকে তার প্রমান আমাদের হাতে আছে। সে একজন নারী কেলেংকারীর খলনায়ক এবং বিতর্কিত ছাত্রনেতা। এ কমিটি শেরপুরের ছাত্রসমাজ তথা লক্ষ লক্ষ আওয়ামী পরিবার মানে না।

সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছানুয়ার হোসেন ছানু আরও বলেন, সদ্যঘোঘিত ছাত্রলীগ কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি প্রকাশ না করলে, অবিলম্বে আমরা শেরপুরের জনগনকে সাথে নিয়ে আওয়ামীলীগ রক্ষায় বৃহৎ আন্দোলনের ডাক দিব। এসময় অন্যান্যেদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মিসেস শামসুন্নাহার কামাল, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ আব্দুল কাদের, জেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলাম মিজু, জাতীয় শ্রমিকলীগ সভাপতি এড. ইমাম হোসেন ঠান্ডু, জেলা শ্রমিকলীগ সাধারন সম্পাদক আমিনুর রহমান মুকুল, জেলা স্বেচ্ছা সেবকলীগ সভাপতি ইফতেখার হোসেন কাফি জুবেরী, জেলা আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবীব, জেলা আওয়ামী যুবমহিলা লীগ সভাপতি এড. ফারহানা মুন্নী প্রমুখ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন