রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ০৯:৪৯:২০ এএম

সারাদেশে সতর্ক অবস্থান ও কৌশলে মাঠে থাকবে আওয়ামী লীগ

জাতীয় | বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ১২:৫৩:৩৯ এএম

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রায়কে ঘিরে ঢাকাসহ সারা দেশে সতর্ক অবস্থানে থাকবে আওয়ামী লীগ। তবে এদিন আনুষ্ঠানিক কোনো কর্মসূচি থাকছে না। আজ থেকেই আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা নিজ নিজ এলাকায় সতর্ক অবস্থানে থাকবেন।

রায়ের দিন বৃহস্পতিবার পাড়া-মহল্লায় স্ব-স্ব ইউনিটের নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়ে বিরোধী পক্ষের যেকোনো ধরনের জমায়েত ও মিছিল- সমাবেশের ওপর নজর রাখবেন। খালেদা জিয়ার রায়কে ঘিরে সারা দেশে দলীয় নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। ঢাকায় দফায় দফায় বৈঠক হয়েছে। সার্বিক প্রস্তুতির বিষয়ে মহানগর আওয়ামী লীগও বৈঠক করেছে।

পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠক হয়েছে। দলীয় সূত্র জানিয়েছে, খালেদা জিয়ার রায়কে ঘিরে বিএনপিকে ঢাকায় শোডাউন বা জমায়েতের সুযোগ দেয়া হবে না। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়ক ঘিরে যাতে কোনো ধরনের নাশকতার ঘটনা না ঘটে সেজন্য ওইসব এলাকার নেতাকর্মীদের সতর্ক প্রহরায় থাকতে বলা হয়েছে।

রায়ের দিন আওয়ামী লীগ সমর্থক পরিবহন শ্রমিক লীগের কর্মীরাও মাঠে থাকবে বলে গতকাল ঘোষণা দিয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় কৌশলী অবস্থান থাকলেও নেতারা বলছেন, এদিন তাদের কোনো কর্মসূচি নেই। বিএনপি জনগণের জানমালের ক্ষতির চেষ্টা করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তা মোকাবিলা করবে। তবে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা জানিয়েছেন, রায়কে ঘিরে কোনো বিশৃঙ্খলা হলে নেতাকর্মীরা তা প্রতিহত করবেন।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান গতকাল বলেন, তিন দিন তো আমরা মাঠে থাকবো। পরিস্থিতি যদি ডিমান্ড করে তাহলে আরো বেশিদিন মাঠ দখলে রাখা হবে। তারপরও কোনো ধরনের অশান্তি হতে দেয়া যাবে না। তিনি বলেন, গত ৪ঠা ফেব্রুয়ারি বিষয়টি নিয়ে একটি বৈঠক করা হয়। সেখানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উপস্থিত ছিলেন। আমরা যার যার অবস্থান থেকে অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছি। কেউ জ্বালাও-পোড়াও করলে আমরা প্রতিরোধ করবো। বসে থাকবো না। আমরা মাঠে আছি। এজন্য আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া আছে।

এদিকে আওয়ামী লীগের পাশাপাশি ছাত্রলীগসহ দলটির বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরাও ওই তিন দিন সতর্ক অবস্থান নেবে। ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেছেন, ৮ই ফেব্রুয়ারিকে ঘিরে একটি মহল সারা দেশে অশান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। ইতিমধ্যে আমরা ঘোষণা দিয়েছি আন্দোলনের নামে অহেতুক কেউ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জনগণের জানমাল রক্ষায় ভূমিকা রাখবে। কোনো নাশকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে তা প্রতিহত করবে ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন বলেন, যেকোনো ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ সব সময় মাঠে ছিল। আগামীতেও থাকবে। এদিকে খালেদা জিয়ার মামলার রায়কে সামনে রেখে সোমবার বৈঠক করেছে ১৪ দল। বৈঠক থেকে সামনের নির্বাচন পর্যন্ত মাঠে থাকার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। বৈঠকে খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের দিনে ১৪ দলের নেতাকর্মীদের সতর্ক অবস্থানে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়।

রায় নিয়ে গোলযোগ হলে ব্যবস্থা: খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায়কে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা হলে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা কঠোর হস্তে তা দমন করবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। গতকাল সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি বলেন, আমরা রাজপথে নামবো কী কারণে? নামবে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা। দেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা যা যা করা দরকার তারা করবে।

রায় কী হবে কেউ জানে না মন্তব্য করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, যার মামলার রায় হবে সেই মামলায় তিনি খালাসও পেতে পারেন আবার সেই মামলা অন্যকিছু হতে পারে। এটা বিচারাধীন একটা মামলা, এটা বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, এখানে কারো কোনো হস্তক্ষেপ নাই। নির্বাচনের বছর হিসেবে যদি রায় বিপক্ষেও যায় বা পক্ষেও যায়- যেটাই হোক না কেন তারা রাজপথে নেমে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করবেন না, এটা আমার ধারণা। আর যদি করে আমরা কেন রাজপথে নামবো? নামবে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা। দেশের মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা যা যা করা দরকার- তারা করবে। -এমজমিন

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন