বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮ ০৯:১৬:৫৪ পিএম

বকশীবাজারে সাংবাদিকদের সাথে ছাত্রলীগ নেতার অসৌজন্যমূলক আচরণ

রাজনীতি | বৃহস্পতিবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ | ০৭:৪৩:৪৬ পিএম

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত অস্থায়ী আদালতের আশপাশে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মাদ্রাসার সামনের তিন পাশের রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে বিপুল সংখ্যক পুলিশ। বন্ধ রয়েছে এলাকার দোকানপাট। বহিরাগত কেউই প্রবেশ করতে পারছেন না। পুলিশ, সাংবাদিক ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ছাড়া কেউ এখানে অবস্থান করতে পারছেন না।

এমন অবস্থার মধ্যেই সরকারি মাদ্রাসা ই আলিয়ার ছাত্রাবাস আল্লামা কাশগরী (রহ.) হলের ভেতরে মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে অবস্থান করছেন মাদ্রাসা ছাত্রলীগ কমিটির নেতাকর্মীরা।

সংবাদকর্মী, সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য এবং আইনজীবীদের মধ্যে অনেকেই ওয়াশরুমে যাওয়ার জন্য হলের ভেতর প্রবেশ করেন। এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের বলেন, এখানে আমাদের বড় ভাই আছেন তার সাথে কথা বলে যান।

বড় ভাইয়ের পরিচয় জানতে চাইলে কর্মীরা বলেন, উনি আলিয়া মাদ্রাসা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুলাইমান আহমেদ।

এ সময় উপস্থিত সংবাদকর্মীরা তাকে কার্ড দেখাতে হবে কেন জানতে চাইলে সুলাইমান বলেন, আরে ভাই হলের নিরাপত্তার বিষয় আছে তো। আপনারা সাংবাদিক না অন্য কেউ জানতে হবে না। ভুয়া সাংবাদিকও তো হতে পারেন।

এ সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের মধ্যে কয়েকজন ক্ষুব্ধ হন। তারা কথা না বাড়িয়ে ভেতরে প্রবেশ করেন। তখন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সুলাইমান তার কর্মীদের মাদ্রাসা হলের গেইট বন্ধ করে দিতে বলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ছাত্রলীগ নেতা সুলাইমানের বাড়ি সিরাজগঞ্জের উল্লাহ পাড়ায়।

এটিএন নিউজের রিপোর্টার এ কে এম আজাদ বলেন, এরা আমাকে ডেকেও নাম পরিচয় জানতে চেয়েছে। কার্ড দেখতে চেয়েছে। আমি পরিচয় দেয়ার পর তারা ভেতরে যেতে দিয়েছে। কিন্তু ব্যবহারের তো একটা ব্যাপার আছে। একটি ছাত্র সংগঠনের নেতার কাছ থেকে এ ধরনের অসৌজন্যমূলক আচরণ আশা করা যায় না।

বকশীবাজারের বিশেষ আদালতে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা করা হবে আজ। এ মামলার অন্যতম আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

-পরিবর্তন ডটকম

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন